StudyWithGenius

Class 8 Model Activity Task Part 8 November New 2021 | Combined Model Activity Task | অষ্টম শ্রেণী মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক | Bengali, English, History, Geography

Class 8 Model Activity Task Part 8 November New 2021 | Combined Model Activity Task

class 8 model activity task part 8 answer, class 8 model activity task part 8 bengali, class 8 model activity task november, class 8 model activity task part 8 chemistry, class 8 model activity task part 8 download, class 8 model activity task part 8 english, class 8 model activity task part 8 exercise, class 8 model activity task part 8 full, class 8 model activity task part 8 geography, class 8 model activity task part 8 mathematics, class 8 model activity task part 8 maths class 8 model activity task part 8 notes, class 8 model activity task part 8 of science, class 8 model activity task part 8 online, class 8 model activity task part 8 question answer, class 8 model activity task part 8 solution, class 8 model activity task part 8 wbbse, class 6 model activity task part 8 west bengal board, class 8 model activity task part 8 with answers, class 8 combined model activity task answer, class 8 combined model activity task bengali, class 8 combined model activity task download, class 8 combined model activity task english, class 8 combined model activity task full, class 8 combined model activity task geography, class 8 combined model activity task mathematics, class 8 combined model activity task maths, class 8 combined model activity task science, class 8 combined model activity task online, class 8 combined model activity task

Class 8 Model Activity Task Part 8 November / Class 8 Combined Model Activity Task হল ২০২১ সালের জুলাই থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত তোমাদের যে সমস্ত Model Activity Task দেওয়া হয়েছিল সেখান থেকে বাছাই করা Important কিছু প্রশ্ন ।

এখানে আমরা Class 8 Model Activity Task Part 8 November / Class 8 Combined Model Activity Task এর সমস্ত প্রশ্ন ও উত্তর নিয়ে চলে এসেছি । ২০২১ সালের এটাই সর্বশেষ Model Activity Task। এই অ্যাক্টিভিটি টাস্কে 50 নম্বরের প্রশ্ন দেওয়া রয়েছে যেগুলো তোমাদের সমাধান করে বিদ্যালয়ে জমা দিতে বলা হয়েছে । এখানে দেওয়া প্রশ্ন গুলি খুবই গুরুত্বপূর্ণ । এর উপর ভিত্তি করেই সম্ভবত তোমরা পরবর্তী শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হবে । সুতরাং, খুবই মন দিয়ে তোমরা নিচের প্রশ্নোত্তর গুলি লিখবে ।

Class 8 Model Activity Task Part 8
SWG Academy

Class 8 Model Activity Task Bengali Part 8 November

Class 8 Combined Model Activity Task

বাংলা (প্রথম ভাষা)

অষ্টম শ্রেণি

১. ঠিক উত্তরটি বেছে নিয়ে লেখাে : ১ × ৫ = ৫ 

১.১ ‘__________ বিষয়ে পৃথিবীতে কোনাে জাতিই আরবদিগের তুল্য নহে।’

(ক) যুদ্ধবিগ্রহ 

(খ) দয়াপ্রদর্শন 

(গ) বৈরসাধন

(ঘ) আতিথেয়তা 

উত্তর: (ঘ) আতিথেয়তা 

১.২ ‘আমার কাছে কীরূপ আচরণ প্রত্যাশা করাে?’ বক্তা হলেন –

(ক) সেলুকাস

(খ) সেকেন্দার

(গ) পুরু 

(ঘ) চন্দ্রগুপ্ত 

উত্তর: (খ) সেকেন্দার

১.৩ পশ্চিমে কুঁদরুর তরকারি দিয়ে ঠেকুয়া খায়।’ – টেনিদাকে একথা বলেছে – 

(ক) হাবুল সেন 

(খ) ক্যাবলা 

(গ) প্যালা

(ঘ) ভন্টা 

উত্তর: (খ) ক্যাবলা 

১.৪ মাইকেল মধুসূদন দত্ত যেই জাহাজ থেকে তার বন্ধু গৌরদাস বসাককে চিঠি লিখেছিলেন, সেটির নাম

(ক) ভার্সাই 

(খ) সীলােন 

(গ) মলটা 

(ঘ) টাইটানিক 

উত্তর: (খ) সীলােন 

১.৫ কবি মৃদুল দাশগুপ্তের প্রথম কাব্যগ্রন্থ –

(ক) এভাবে কাঁদে না 

(খ) সূর্যাস্তে নির্মিত গৃহ 

(গ) জলপাই কাঠের এসরাজ 

(ঘ) ঝিকিমিকি ঝিরিঝিরি 

উত্তর: (গ) জলপাই কাঠের এসরাজ 

২. নীচের প্রশ্নগুলির সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও : ২ × ১০ = ২০ 

২.১ ‘মান্ধাতারই আমল থেকে চলে আসছে এমনি রকম’ – কোন্ প্রসঙ্গে কবি একথা বলেছেন? 

উত্তর: উদ্ধৃত অংশটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা ‘বােঝাপড়া’ কবিতার অংশ। এই পৃথিবীতে সবার জন্য সবাই নয়, কেউ তােমাকে ফাঁকি দেয় তুমিও কাউকে ফাঁকি দাও। এই পৃথিবীর কিছুটা তুমি ভােগ করাে-বাকিটা অন্যরা ভােগ করে। এসব আলােচনার প্রসঙ্গেই কবি উদ্ধৃত উক্তিটি বলেছেন।

২.২ ‘আমা অপেক্ষা আপনকার ঘােরতর বিপক্ষ আর নাই। | – বক্তার একথা বলার কারণ কী? 

উত্তর: উদ্ধৃত উক্তিতির বক্তা হলেন আরব সেনাপতি। মুর সেনাপতি অজান্তেই তাঁর শত্রু শিবিরে এসে আশ্রয় গ্রহন করেছিলেন। আরবদের অতুলনীয় আতিথেয়তা উপভোগ করে তিনি মুগ্ধ হয়ে যান এবং গল্প করতে করতে প্রকাশ পায় যে মুর সেনাপতি আরব সেনাপতির পিতার হত্যাকারী। তাই প্রতিশোধপরায়ন আরবসেনাপতি বলেছিলেন যে এই বিপক্ষ শিবিরে তিনি মুর সেনাপতির সবথেকে বড় শত্রু।

২.৩ ‘আন্টিগােনাস! তােমার এই ঔদ্ধত্যের জন্য তােমায় আমার সাম্রাজ্য থেকে নির্বাসিত করলাম।” – আন্টিগােনস কোন ঔদ্ধত্য দেখিয়েছে?

উত্তর: আন্টিগােনস গুপ্তচর সন্দেহে চন্দ্রগুপ্তকে ধরে সেকেন্দারের কাছে নিয়ে আসেন। সেখানে জানা যায় গ্রীক সেনাপতি সেলুকাস চন্দ্রগুপ্তকে যুদ্ধকৌশল শিক্ষা দিয়েছিলেন। আন্টিগােনস হয়ে সেকেন্দারের সামনেই সেলুকাসকে তরবারি নিয়ে আক্রমণ করেন। সম্রাটের আদেশ ছাড়াই তার এই কার্যকলাপের মধ্যে দিয়ে উদ্ধত্য প্রকাশ পেয়েছে।

২.৪ ‘তােদের মতাে উল্লুকের সঙ্গে পিকনিকের আলােচনাও ঝকমারি!’— কোথা প্রসঙ্গে টেনিদা এমন মন্তব্য করেছিল? 

উত্তর: নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় রচিত ‘বনভােজনের ব্যাপার’ গল্পটিতে পিকনিকের মেনু কি হবে তা নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলােচনা চলছিল।টেনিদা, হাবুল, প্যালা ও ক্যাবলা পিকনিকের পরিকল্পনা করছিল। টেনিদা মুর্গ মুসল্লম, বিরিয়ানি, পোলাও, চাউ চাউ ইত্যাদি ভালো ভালো খাবারের নাম বললেও প্যালা হঠাৎ করেই আলুভাজা, শুক্ত, বাটিচচ্চড়ি ইত্যাদি খাবারের কথা উল্লেখ করে। ভালো ভালো খাবারের মাঝে এইসব সাধারন খাবারের নাম শুনেই বিরক্ত হয়ে ও রেগে গিয়ে টেনিদা এই মন্তব্য করেছিল।

২.৫ ‘কৌতুহলী দুই চোখ মেলে অবাক দৃষ্টিতে দেখে’ – চড়ুইপাখির চোখে কৌতুহল কেন? 

উত্তর: উদ্ধৃত অংশটি তারাপদ রায়ের লেখা ‘একটি চড়ুই পাখি’ কবিতার অংশ। চড়ুই পাখিটির চোঁখে কৌতুহল কারণ– কবির বাড়ির নির্জনতা। অন্যান্য সমস্তু বাড়িতে অনেক মানুষজন থাকলেও কবির বাড়িতে কবি না থাকলে তা জনশূন্য হয়ে থাকে। তাই কবির বাড়িতে বাসা বাঁধা চড়ুই পাখিটি কৌতুহলী চোখ নিয়ে কবির বাড়িটি দেখে।

২.৬ ‘ছেলের কথা শুনেই বুকুর মা-র মাথায় বজ্রঘাত!

– বুকুর কোন্ কথায় তার মা অতিথিদের সামনে অস্বস্তিতে পড়লেন? 

উত্তর: আশাপূর্ণা দেবীর লেখা ‘কী করে বুঝব’ গল্পে বুকুর মুখে উত্তরপাড়া থেকে ছেনু মাসিরা এসেছেন শুনে বুকুর মা বিরূপ মন্তব্য করেছিলেন। কিন্তু অতিথিদের সামনে এসে তিনি ভীষণ আনন্দের সঙ্গে তাদের অভ্যর্থনা জানান । মায়ের এই পরিবর্তন দেখে বুকু হঠাৎ সবার সামনে মাকে প্রশ্ন করে বসে যে সে কেন তবে অখুশি হয়ে অসময়ে অথিতি আসায় বিরক্তি প্রকাশ করছিল? বুকুর এই কথাগুলো শুনেই তার মা অতিথিদের সামনে অস্বস্তিতে পরেন।

২.৭ ‘রমেশ অবাক হইয়া কহিল, ব্যাপার কী?’ – উত্তরে চাষিরা কী বলেছিল? 

উত্তর: জমিদার বাড়ির ছােটবাবু রমেশের কাছে গ্রামের কুড়ি জন কৃষক এসে কাঁদতে থাকায় রমেশ তাদের জিজ্ঞাসা করেছিল– ব্যাপার কি? এর উত্তরে চাষিরা বলেছিল– প্রবল বৃষ্টিতে একশাে বিঘে মাঠ জলে ডুবে গেছে। জল বার করে না দিলে সমস্ত ধান নষ্ট হয়ে যাবে, গ্রামের একটি পরিবারও খেতে পাবে না।

২.৮ “গাছের জীবন মানুষের জীবনের ছায়ামাত্র। – লেখকের এমন মন্তব্যের কারণ কী? 

উত্তর: লেখক জগদীশচন্দ্র বসু গাছকে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে মনে হয়েছে, গাছের বৈশিষ্ট্যগুলি মানুষের মধ্যেকার নানান স্বভাব বৈশিষ্ট্যের অনুরূপ। মানুষের মতো এদের জীবনেও অভাব-অনটন এবং দুঃখকষ্ট আছে। মানুষের মধ্যে যেমন সদগুণ আছে, এদের মধ্যেও সেই সগুণের বহিঃপ্রকাশ লক্ষ করা যায়। তাই লেখক এমন মন্তব্য করেছেন।

২.৯ ‘তবু নেই, সে তাে নেই, নেই রে’ – কী না থাকার যন্ত্রণা পঙক্তিটিতে মর্মরিত হয়ে উঠেছে?

উত্তর: উদ্ধৃত অংশটি বুদ্ধদেব বসুর লেখা ‘হাওয়ার গান’ কবিতার অংশ। হাওয়ারা পৃথিবীর সমস্ত জল,সমস্ত তীর ছুঁয়ে গেলেও নিজেদের বাসস্থানটুকু না খুজে পাওয়ার অস্থিরতা ও বুকচাপা কান্না প্রকাশ করেছে বুদ্ধদেব বসুর কলমের মধ্য দিয়ে। উদ্ধৃত অংশটিতে হাওয়াদের নিজস্ব বাসভূমি না থাকার যন্ত্রণা মর্মরিত হয়ে উঠেছে।

২.১০ ‘ছন্দহীন বুনাে চালতার’ – ‘বুনাে চালতা’কে ছন্দহীন বলা হয়েছে কেন? 

উত্তর: কবি জীবনানন্দ দাশ পাড়াগাঁর দ্বিপ্রহরকে ভালোবাসেন। সেই নিঝুম দুপুরে জলসিড়ি নদীর পাশে বুনো চালতার শাখাগুলি নুয়ে পড়ে, জলে তাদের মুখ দেখা যায়। কিন্তু বাতাসহীন দুপুরে বুনো চালতার ডালে কোন দোলন দেখা যায় না। প্রকৃতিতে যেন ভিজে বেদনার গল্প আকাশের নীচে কেঁদে কেঁদে ভেসে বেড়াচ্ছে। আর সেই বেদনাতেই বুনো চালতা ছন্দহীন।

৩. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর নিজের ভাষায় লেখাে : ৫ × ২ = ১০ 

৩.১ ‘পরবাসী’ কবিতায় শেষ চারটি পঙক্তিতে কবির প্রশ্নবাচক বাক্য ব্যবহার করার তাৎপর্য বিশ্লেষণ করাে। 

উত্তর: বিষ্ণু দে-র ‘পরবাসী’ কবিতাটির শেষ স্তবকের চারটি বাক্যে কবি চারটি জিজ্ঞাসা চিহ্ন ব্যবহার করেছেন, যা কবিতাটিকে বিশেষ মাত্রায় পৌঁছে দিয়েছে। ‘পরবাসী’ কবিতার শেষ স্তবকে কাব্যালংকারের বিশিষ্ট প্রয়োগ লক্ষ করা যায়। কবি যেন তির্ষক, তীক্ষ্ণ প্রশ্নের কশাঘাতে মানুষের, বিশেষত ব্যাবসাজীবী, মানুষের বিবেককে জাগিয়ে তুলতে সচেষ্ট হয়েছেন। সভ্যতার আগ্রাসনে পৃথিবীর নদী, পাহাড়, গাছ লুপ্ত হচ্ছে। বনবাসী প্রাণীরা হারিয়ে যেতে বসেছে। নিজের দেশেই মানুষ উদ্বাস্তুর মত ঘুরে বেড়াতে বাধ্য হয়েছে। তারা স্থায়ী স্বাভাবিক, চিরপ্রত্যাশিত নিজস্ব বাসস্থান গড়ে তুলতে পারে না। কবি এখানেই প্রকৃতির স্বাভাবিকতাকে পেতে আগ্রহী। শেষ স্তবকে কবির একাধিক প্রশ্নের মধ্যে দিয়ে আমরা তাঁর বন্যপ্রাণ, বণ্যপ্রাণী তথা প্রকৃতি প্রেমের পরিচয় পাই।

৩.২ ‘আজ সকালে মনে পড়ল একটি গল্প’– গল্পটি বিবৃত করাে।

উত্তর: গল্পটি হল, নাটোরে অনুষ্ঠিত প্রভিনশিয়াল কনফারেন্সে বাংলা ভাষার প্রচলন। লেখক-শিল্পী অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুর, তাঁর কাকা রবীন্দ্রনাথ ও অন্যান্যদের সঙ্গে গিয়েছিলেন নাটোরে। সে এক হৈ হৈ রৈ রৈ ব্যাপার। প্রথমে স্পেশাল ট্রেন ও পরে স্টিমারে করে পদ্মা পেরিয়ে নাটোর। এই সম্মেলনের অভ্যর্থনা কমিটির সভাপতি নাটোর-মহারাজ জগদিন্দ্রনাথ। তাঁর ব্যবস্থাপনায় এক রাজকীয় আয়োজন। যেমন- খাওয়াদাওয়া, তেমনই অন্যান্য সব ব্যবস্থা। তারপর যথারীতি শুরু হয় গোলটেবিল বৈঠক এবং বক্তৃতা। ইংরেজিতে যেই বক্তৃতা শুরু হয়, সঙ্গে সঙ্গে ‘বাংলা, বাংলা’ বলে অবনীন্দ্রনাথ ও তাঁর সঙ্গীরা প্রতিবাদ শুরু করেন। এরপর কেউ আর ইংরেজিতে বক্তৃতা করতে পারেননি। এমনকি ইংরেজি দুরস্ত লালমোহন ঘোষও শেষপর্যন্ত বাংলায় বলতে বাধ্য হন। এটি লেখকের মনে রাখার মতোই ঘটনা। এভাবেই কনফারেন্সে বাংলা ভাষা চালু হয়। এ সম্পর্কে লেখক জানান, সেই প্রথম তারা বাংলা ভাষার জন্য লড়াই করেছিলেন।

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

৪. নির্দেশ অনুসারে উত্তর দাও :

৪.১ দল বিশ্লেষণ করে দল চিহ্নিত করাে : ১ × ৫ = ৫

ইস্টিশান, বাগুইআটি, দর্শনমাত্র, ক্ষিপ্রহস্ত, অদ্ভুতরকম 

উত্তর: 

ইস্টিশান => ইস্ (রুদ্ধ দল) — টি (মুক্ত দল) — শান্ (রুদ্ধ দল)

বাগুইআটি => বা (মুক্ত দল) — গুই (রুদ্ধ দল) — আ (মুক্ত দল) — টি (মুক্ত দল)

দর্শনমাত্র => দর্ (রুদ্ধ দল) — শন্ (রুদ্ধ দল) — মাত্ (রুদ্ধ দল) — র (মুক্ত দল)

ক্ষিপ্রহস্ত => ক্ষিপ্ (রুদ্ধ দল) — র (মুক্ত দল) — হস্ (রুদ্ধ দল) — ত (মুক্ত দল)

অদ্ভুতরকম => অদ্ (রুদ্ধ দল) — ভূত্ (রুদ্ধ দল) — র (মুক্ত দল) — কম্ (রুদ্ধ দল)

৪.২ উদাহরণ দাও : ১ × ৫ = ৫ 

মধ্যস্বরাগম, স্বরভক্তি, অন্তঃস্থ য়-শ্রুতি, অন্ত্যস্বরলােপ, অন্যোন্য স্বরসংগতি 

উত্তর:

মধ্যস্বরাগম এর উদাহরণ: চাকরি > চাকুরি, নয়ন > নয়ান

স্বরভক্তি এর উদাহরণ: কর্ম > করম, ধর্ম > ধরম

অন্তঃস্থ য়-শ্রুতি এর উদাহরণ: চা – এর > চায়ের

অন্ত্যস্বরলােপ এর উদাহরণ: বন্যা > বান, আজি > আজ

অন্যোন্য স্বরসংগতি এর উদাহরণ: দাশু > দেশো

৫. বন্যার প্রকোপে গ্রামের বহু কৃষিজমি নদীর গ্রাসে হারিয়ে যাচ্ছে – নদীর পাড়গুলির স্থায়ী রক্ষণাবেক্ষণ প্রয়ােজন। এ বিষয়ে সংবাদপত্রের সম্পাদকের কাছে একটি চিঠি লেখাে। ৫

উত্তর: 

তারিখ: ১৮-০৭-২০২১

সম্পাদক

যুগান্তর পত্রিকা

ধারাকান্দী, গৌরীপুর-২২৭০, কলকাতা

বিষয়: নদীর পাড়গুলির স্থায়ী রক্ষণাবেক্ষণের জন্য আবেদন

মহাশয়,

বাংলা একটি নদীপ্রধান এলাকা। নদী যেমন আমাদের জল, পলি দিয়ে সমৃদ্ধ করে ঠিক তেমনি প্রচণ্ড বন্যায় নদীর নিকটবর্তী এলাকাগুলি চরম ক্ষতির সম্মুখীন হয়। প্রতি বছর মালদা, মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটাল, হাওড়ার উদয়নারায়ণপুর ও হুগলির খানাকুল বন্যার প্রকোপে জলমগ্ন হয়। কিন্তু তাই নয় বন্যার প্রকোপে গ্রামের বহু কৃষিজমি নদীর গ্রাসে হারিয়ে যাচ্ছে, গৃহহীন ও সম্পদহীন হয়ে যাচ্ছে হাজার হাজার কৃষক।

এই প্রতিকূল পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে নদীর পাড়গুলির স্থায়ী রক্ষণাবেক্ষণ প্রয়োজন। নদীর তীরবর্তী এলাকায় যেখানে পাড় সহজেই ভেঙ্গে যাওয়ার আশঙ্কা আছে সেখানে বাধ দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। সরকারী ও এলাকার মানুষের উদ্যোগে বেশী করে গাছ লাগাতে হবে এবং ক্ষয়প্রবণ অঞ্জল থেকে বসতি সরিয়ে আনতে হবে।

নদীর পাড়গুলির স্থায়ী রক্ষণাবেক্ষণ গ্রহণ করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য আপনার বহুল প্রচারিত পত্রিকায় জনগুরুত্বপূর্ণ পত্রটি প্রকাশ করলে বিশেষভাবে বাধিত হব।

                                                     বিনীত

                                              রবিন মজুমদার

                                                      মালদা 

 

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

SWG Academy

Class 8 Model Activity Task English Part 8 November

Class 8 Combined Model Activity Task
CLASS – VIII
ENGLISH

SECTION A : READING COMPREHENSION 

1. Read the following passage and answer the questions given below : 

One quiet afternoon, he lay fast asleep and fell to dreaming again. Unknown to him, the ship stood offshore from his old farm. In Jon’s dream the seasons turned rapidly and as each turned, so did Jon in his bed. Consequently, the cap on his head twisted round and about. It called up a squall from the clear sky that hit the ship without a warning. 

The wind had been whirling about the boat tearing the sails and snapping the spars. “Its’ his fault,” the sailors cried. They shouted in anger and fear and tried to rid the cap off his head. 

Well, they were unsuccessful, for it was a fairy cap. 

Answer the following questions : 2×4=8

(i) What happened as Jon lay fast asleep? 

Ans: One quiet afternoon, while Jon laid fast asleep Unknown to him, the ship stood offshore from his old farm.

(ii) How did the squall arise suddenly? 

Ans: One quiet afternoon, while Jon was laying fast asleep, the cap on his head twisted round and about. It called up a squall form the clear sky and hit the ship without warning.

(iii) Describe the condition of the ship in the squall. 

Ans: The wind had been whirling about the boat tearing the sails and snapping the spars.

(iv) What did the sailors do to stop the squall?

Ans: The sailors shouted in anger and fear and tried to rid the cap off from Jon’s head.

2. Read the following passage and answer the questions given below : 

On 16th January, 1941, Sisir finished his dinner early and drove to Elgin Road around 8.30 p.m. He parked the Wanderer at the back of the house. 

Sisir and Subhas had maintained total secrecy about the plan of escape. None of the family members knew anything except Subhas’s niece, Ila and a male cousin, Dwijen. Subhas and Sisir waited until the rest of the Bose family had fallen asleep. 

Subhas had changed into his disguise as Muhammad Ziauddin. He was dressed in a long brown coat, baggy shalwars and a black fez. He wore gold wire-rimmed spectacle

 

A. Write ‘T’ for true and ‘F’ for false statements in the given boxes. Write supporting statements for your answers : 2×3=6 

i. It was around 8.30 p.m. when Dwijen reached their house at Elgin Road. 

Ans: False.

Supporting statement: On 16th January 1941, Sisir finished his dinner early and drove to Elgin Road around 8.30 p.m.

ii. Sisir was the only person who knew about the plan of escape. 

Ans: False.

Supporting statement: None of the family members knew anything except Subhas’s niece lla and a male cousin, Dwijen.

iii. Muhammad Ziauddin was Subhas Chandra Bose in disguise. 

Ans: True.

Supporting statement: Subhas had changed into his disguise as Muhammad Ziauddin.

 

B. Answer the following questions : 2×3=6 

a) What is the Wanderer? 

Ans: Wanderer is the name of a personal car of Sisir.

b) Which persons of the Bose family knew about the great escape of Subhas? 

Ans: Subhas’s niece lla and a male cousin, Dwijen knew about the great escape of Subhas.

c) How did Subhas disguise himself ? 

Ans: Subhas was dressed in a long, brown coat, baggy shalwars, and a black fez and wore gold wire-rimmed spectacles.

SECTION B : GRAMMAR AND VOCABULARY

3. Do as directed : 1×5=5 

(i) Every morning he has to go for a walk. (Underline the Infinitive used in the sentence) 

Ans: Every morning he has to go for a walk.

(ii) Nowadays supply of food grains is abundant. (Replace the underlined word with its antonym) 

Ans: Nowadays supply of food grains is scarce.

(iii) This is the place where Rabindranath was born. (Underline the Main Clause and circle the Subordinate Clause) 

Ans: where Rabindranath was born.

(iv) The news that shocked me proved false. (Identify the type of clause used in the sentence) 

Ans: Adjective Clause

(v) By this time next year Diya will be attending her university classes. (Rewrite the following sentences using Future Perfect tense) 

Ans: By this time next year Diya will have attended her university classes.

 

4. Classify the Noun phrase, Adjective phrase and Adverb phrase of the following sentences and fill in the table given below : 1×6=6 

a) Those houses are very expensive.

b) I will never do that, never in a million years.

c) She is rather fond of singing.

d) The spotted puppy is up for adoption.

e) It was cold, bleak, biting weather.

f) Meet me at the mall later in the evening.

Ans: 

Noun PhraseAdjective PhraseAdverb Phrase
Those housesrather fond of singingnever in a million years
The spotted puppycold, bleak, biting weatherlater in the evening

5. Change into Indirect Speech : 1×3=3 

(i) My father said to me, “May God bless you.” 

Ans: My father prayed that God might bless me.

(ii) The police officer said, “Don’t go there.” 

Ans: The police officer ordered not to go there.

(iii) The Headmaster said to me, “Where do you live?” 

Ans: The Headmaster asked me where I lived.

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

SECTION C : WRITING

6. Write a letter to your friend (in about 80 words), who stays far away, describing about a festival of West Bengal. You may use the following points : 8 

Hints: time when the festival took place – how long it lasted– number of people participated- description of the festival– your enjoyment 

Ans:                         Rahul Mandal

                              Kanyapur, Asansol, 

                         Burdwan, WB – 713341

Dear friend Rajesh, 

How are you doing? I hope everything is fine with you and your family. Today I’m going to tell you about a wonderful festival of West Bengal Kali Puja. This festival takes place in the Bengali month of Kartik. The weather is really lovely during this festival. The festival is only two days long. Thousands of people participate in this festival. Different types of lights are used to decorate the pandals. The goddess Kali’s pula is held at midnight. In the morning the idol is abandoned. We enjoy these two days very much wearing new dresses, eating different kinds of food and visiting so many pandals. No more today. Please respond as quickly as possible to this letter.

                                  Your loving friend,

                                              Rahul

Mr. Rajesh Roy

C/O: Sunil Roy

Address: Vill+P.O – Churamonipur,

P.S – Onda,

District – Bankura,

Pin – 722144

 

7. Write a paragraph in about 80 words on the life of the famous painter and writer Abanindranath Tagore. You may use the following points : 8 

Birth: 7 August, 1871 at Jorasanko, Calcutta

Parents: Gunendranath Tagore and Saudamini Devi

Siblings: Gagenendranath Tagore and Sunayani Devi

Education: Government College of Art and Craft, Sanskrit College, University of Calcutta

Famous for: Drawing, painting and writing

Notable work of art: Bharat Mata, The passing of Shah Jehan

Important books: Khirer Putul, Raj Kahini, Buro Angla etc.

Death: 5 December 1951

Ans: On 7 august, 1871 Abanindranath Tagore was born in Jorasanko, Calcutta. His parents name was Gunendranath Tagore and Saudamini Tagore. Sunayani Dev was his sister. In the 1880s, Tagore studied art at Sanskrit College in Kolkata.

In 1890 round the age of twenty years, Abanindranath attended the Calcutta School of Art where he learnt to use pastels from O. Ghilardi, and oil painting from C. Palmer, European painters who taught in that institution. His idea of modernizing Mughal and Rajput paintings eventually gave rise to modern Indian painting, which took birth at his Bengal school of art. Bharat Mata, The Passing of Shah Jahan, Ganash Janani et al. are some of his most famous paintings. Abanindranath is also regarded as a proficient and accomplished writer. Most of his literary works were meant for children Some of his books like ‘Budo Angla’, ‘Khirer Putul’ and ‘Raj kahini’a re best examples of Bengali children’s literature.The  famous artist died on 5 December, 1951.

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

SWG Academy

Class 8 Model Activity Task History Part 8 November

Class 8 Combined Model Activity Task

অষ্টম শ্রেণি

ইতিহাস

১. ‘ক’ স্তম্ভের সাথে ‘খ’ স্তম্ভ মেলাও :
স্তম্ভ স্তম্ভ
১.১ আবওয়াব (ক) মহাজন
১.২ সাহুকার (খ) অগ্রিম অর্থ
১.৩ দাদন (গ) কৃষক
১.৪ রায়ত (ঘ) বেআইনি কর
উত্তর:
স্তম্ভ স্তম্ভ
১.১ আবওয়াব (ঘ) বেআইনি কর
১.২ সাহুকার (ক) মহাজন
১.৩ দাদন (খ) অগ্রিম অর্থ
১.৪ রায়ত (গ) কৃষক
২. সঠিক তথ্য দিয়ে নীচের ছকটি পূরণ করাে : 
বিদ্রোহ একজন নেতার নাম কারন (যে কোনাে একটি)
নীল বিদ্রোহ
বারাসাত বিদ্রোহ
সাঁওতাল বিদ্রোহ
মুণ্ডা বিদ্রোহ
উত্তর: 
বিদ্রোহ একজন নেতার নাম কারন (যে কোনাে একটি)
নীল বিদ্রোহ বিষ্ণুচরণ বিশ্বাস নীলকর কোনো নীলচাষিকেই ন্যায্য মুল্য দিত না
বারাসাত বিদ্রোহ মীর নিসার আলী (তিতুমীর) ব্রিটিশদের অত্যাচার
সাঁওতাল বিদ্রোহ সিধু কানহু বহিরাগত মহাজনদের অত্যাচার
মুণ্ডা বিদ্রোহ বিরসা মুণ্ডা জমিদার মহাজন, খ্রিষ্টান মিশনারি ও ঔপনিবেশিক সরকারের অত্যাচার
 

৩. সত্য বা মিথ্যা নির্ণয় করাে :

৩.১ ১৮৭৬ খ্রিস্টাব্দে লর্ড নর্থব্রুক জারি করেন নাট্যাভিনয় নিয়ন্ত্রণ আইন। 

উত্তর: সত্য

৩.২ ১৯০৫ খ্রিস্টাব্দের ১৬ অক্টোবর বাংলা বিভাজনের পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করা হয়।

উত্তর: সত্য

৩.৩ পাঞ্জাবে লালা লাজপত রাই-এর নেতৃত্বে শিবাজি উৎসব চালু হয়।

উত্তর: মিথ্যা

৩.৪ সাঁওতালরা ঔপনিবেশিক শাসকের শােষনের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছিল। 

উত্তর: মিথ্যা

 

৪. সঠিক শব্দ বেছে নিয়ে শূন্যস্থান পূরণ করাে :

৪.১  ১৭১৭ খ্রিষ্টাব্দে ___________ কে বাংলার নাজিম পদ দেওয়া হয় (মুর্শিদকুলি খান/সাদাৎ খান /আলিবর্দি খান)। 

উত্তর: মুর্শিদকুলি খান । 

৪.২ ১৭২২ খ্রিষ্টাব্দে ___________ এর নেতৃত্বে অযােধ্যা এবং স্বশাসিত আঞ্চলিক শক্তি হিসাবে গড়ে ওঠে (নিজাম-উল-মুলক/সাদাৎ খান/সফদর জং)।

উত্তর: সাদাৎ খান

৪.৩ ১৭২৪ খ্রিষ্টাব্দে হায়দ্রাবাদ রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেন ___________ । (ফররুখশিয়র / নিজাম-উল-মুলক/সাদাৎ খান)।

উত্তর: নিজাম-উল-মুলক

৪.৪ ১৮৭৮ খ্রিষ্টাব্দে দেশীয় মুদ্রণ আইন জারি করেন ___________ (লর্ড লিটন/লর্ড রিপন/লর্ড বেন্টিঙ্ক/লর্ড ক্যানিং)। 

উত্তর: লর্ড লিটন । 

৫. চার-পাঁচটি বাক্যে উত্তর দাও :

৫.১ কে, কি উদ্দেশ্যে সিভিল সার্ভিস চালু করেন? 

উত্তর:  ভারতে সিভিল সার্ভিস চালু করেন লর্ড কর্ণওয়ালিশ । সিভিল সার্ভিস চালু করার পিছনে লর্ড কর্ণওয়ালিশের প্রধান উদ্দেশ্য ছিল প্রশাসনিক কাজের মানকে উন্নত ও দ্রুতগামী করা । উল্লেখ্য রাজস্ব বিভাগের কর্মচারীদের দক্ষ করার জন্য ও সাধারণ কর্মচারীদের দুর্নীতি বন্ধ করাই ছিল উদ্দেশ্য ।

৫.২ ব্যাপটিস্ট মিশন শিক্ষার প্রসারে কেমন ভূমিকা পালন করেছিল? 

উত্তর: ব্যাপটিস্ট মিশনারি ১৮০০ খ্রিষ্টাব্দে উইলিয়াম কেরি, মার্শম্যান ও উইলিয়ম ওয়ার্ডের মিলিত প্রচেষ্টায় শ্রীরামপুরে প্রতিষ্ঠা হয়। শিক্ষার প্রসারে ব্যাপটিস্ট মিশনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। এই মিশনের প্রচেষ্টাতেই ১২৬ টি বিদ্যালয় ও প্রায় দশ হাজার ভারতীয় ছাত্র পাশ্চাত্য শিক্ষার সুযোগ পায়।

৫.৩ পণ্ডিতা রমাবাঈ কেন স্মরণীয়?

উত্তর: পণ্ডিতা রমাবাই একজন মহিলা অধিকারি ও শিক্ষা কর্মী। ভারতের নারীদের শিক্ষা ও মুক্তি দানের অগ্রদূত এবং একজন সমাজ সংস্কারক। তিনি প্রথম নারী যিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক পণ্ডিত এবং সরস্বতী উপাধিতে ভূষিত হন। তিনি ১৮৮৯ সালের কংগ্রেস অধিবেশনে ১০ জন মহিলা প্রতিনিধিদের মধ্যে একজন ছিলেন। ১৮৯০ সালের শেষদিকে, তিনি পুনে শহর থেকে চল্লিশ মাইল পূর্বে কেদগাঁও গ্রামে মুক্তি মিশন প্রতিষ্ঠা করেন। পরে মিশনটির নামকরণ করা হয় পণ্ডিতা রমাবাই মুক্তি মিশন।

৫.৪ ইয়ং বেঙ্গল দলের দুটি সীমাবদ্ধতার উল্লেখ করাে।

উত্তর: ইয়ং বেঙ্গল দলের দুটি সীমাবদ্ধতা হল

(i) ইয়ং বেঙ্গল দল শুধু হিন্দু সমাজের সংস্কার নিয়ে চিন্তাভাবনায় ব্যস্ত ছিল। মুসলিম সমাজের সংস্কার নিয়ে গােষ্ঠীর সদস্যরা কোনাে চিন্তাভাবনা করেননি। 

(ii) ইয়ংবেঙ্গল গােষ্ঠী দেশের দরিদ্র কৃষক ও শ্রমিকদের দুরবস্থা ও সমস্যা সম্পর্কে সম্পূর্ণ উদাসীন ছিলেন।

৫.৫ ইলবার্ট বিলকে নিয়ে কেন বিতর্কের সূচনা হয়েছিল? 

উত্তর: কোনও ভারতীয় বিচারকের ইউরােপীয়দের বিচার করার অধিকার ছিল না। গভর্নর জেনারেল লর্ড রিপনের আইনসভার সদস্য ইলবার্ট বিচার বিভাগীয় ক্ষেত্রে এই অসংগতি দূর করার চেষ্টা করেন তার প্রস্তাবিত একটি বিলে ভারতীয় বিচারকদের ইউরােপীয়দের বিচার করার অধিকার দেওয়া। হয়, এই বিলের প্রতিবাদে ইউরােপীয়রা সংগঠিতভাবে বিদ্রোহ ঘােষণা করে l শ্বেতাঙ্গদের এই আন্দোলনের ফলে ঐ বিল প্রত্যাহার করা হয় । বিল প্রত্যাহার হলে ভারত সভার উদ্যোগে ভারতীয়রা আন্দোলন শুরু করেন। উভয়পক্ষের আন্দোলন ও পাল্টা আন্দোলন ইলবার্ট বিল বিতর্ক নামে পরিচিত।

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

৬. আট-দশটি বাক্যে উত্তর দাও :

৬.১ জমি জরিপ ও রাজস্ব নির্ণয়ের ক্ষেত্রে ঔপনিবেশিক প্রশাসন কী কী পদক্ষেপ নিয়েছিল? 

উত্তর: বক্সারের যুদ্ধের পর নায়েব নাজিম, আমিলদার ও সুপারভাইজার এসব গঠনের মাধ্যমেই কোম্পানি ভূমিরাজস্বের ভার দখল করতে থাকে । ঔপনিবেশিক শাসনের জমি জরিপ ও রাজস্ব আদায়ের ক্ষেত্রে পদক্ষেপগুলাে হলাে – পাঁচাওসালা, একসালা, দশসালা ও চিরস্থায়ে বন্দোবস্ত এবং রায়তওয়ারি ও মহলওয়ারি বন্ধবস্ত ইত্যাদি।

পাঁচসালা বন্ধোবস্ত : ভ্রাম্যমান কমিটির সুপারিশে ওয়ারেন হেস্টিংস ১৭৭২ খ্রিস্টাব্দে পাঁচ বছরের জন্য জমিদারদের জমি বন্টন করেন, সেটাই পাঁচসালা বন্ধোবস্ত নামে পরিচিত।

একসালা বন্ধোবস্ত : পাঁচসালা বন্ধোবস্তের অসুবিধাগুলাে দূর করতে আমিনি কমিশনের রিপাের্টের ভিত্তিতে ওয়ারেন হেস্টিংস এক সালা বন্দোবস্ত চালু করেন। 

দশসালা বন্ধোবস্ত : ১৭৯০ খ্রিস্টাব্দে লর্ড কর্নওয়ালিস বাংলা, বিহার ও , উড়িষ্যার জমিদারের দশ বছরের জন্য জমি দেন, এরই নাম দশ সালা বন্ধোবস্ত। 

চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত : জামিদাররা দশ সালা বন্ধোবস্ত অনুসারে ঠিক সময় মতাে রাজস্ব জমা দেয় তাই রাজস্ব বাের্ডের পরামর্শে লর্ড কর্ণওয়ালিস। ১৭৯৩ খ্রিস্টাব্দের ২২ মার্চ বাংলা, বিহার ও উড়িষ্যার জমিদারদের চিরদিনের জন্য নির্দিষ্ট রাজস্বের বিনিময়ে জমি বন্টন করেন, এটাই চিরস্থায়ী বন্ধোবস্ত নামে পরিচিত।

৬.২ ‘সম্পদের বহির্গমন’ বলতে কী বােঝাে? 

উত্তর: সম্পদের বহির্গমন- পলাশির যুদ্ধ জয়ের পর কোম্পানি অষ্টাদশ শতকের মধ্যভাগে বাংলা ও ভারতের অন্যান্য প্রান্ত থেকে কোনাে প্রতিদান ছাড়াই বিপুল পরিমাণ অর্থ, বিভিন্ন পণ্য ও উৎপাদিত দ্রব্যসামগ্রী ইংল্যান্ডে চালান করেছিল এই ঘটনাটিই ঐতিহাসিক ও সমালােচকদের মতে সম্পদের নির্গমন বা অর্থনৈতিক নিষ্ক্রমণ নামে পরিচিত । এ প্রসঙ্গে কোম্পানির মাদ্রাজের রাজস্ব সচিব জন সুলিভ্যান লিখেছেন—আমাদের শাসনব্যবস্থা অনেকটা স্পঞ্জের মতো গঙ্গা তীরবর্তী দেশ থেকে এই স্পঞ্জধর্মী শাসন যা কিছু সম্পদ সব শুষে নেয় এবং টেমস তীরবর্তী দেশে এনে তা নিংড়ে দেয়।দাদাভাই নওরােজি, রমেশচন্দ্র দত্ত সম্পদের বহির্গমনকে ‘Drain of Wealth’ বলে উল্লেখ করেছেন। 

সময়কাল : ১৭৫৭ খ্রিস্টাব্দে পলাশির যুদ্ধ জয়ের পর থেকেই কোম্পানি বিভিন্নভাবে সম্পদের নির্গমন ঘটাতে শুরু করে কার্ল মাকর্স দাস ক্যাপিটালের ‘প্রথম খণ্ডে উল্লেখ করেছেন যে-১৭৫৭ থেকে ১৭৬৬ খ্রিস্টাব্দের মধ্যে ৬ মিলিয়ন পাউন্ড শুধু উপহার বাবদ ভারতের বাইরে চালান দেওয়া হয়।

সম্পদ নির্গমনের পদ্ধতি-  আর্থিক নিষ্ক্রমণ ঘটেছিল দুটি পদ্ধতির মাধ্যমে। 

(i) কোম্পানির কর্মচারী ও বণিকদের মাধ্যমে। 

(ii) কোম্পানির বাণিজ্য অর্থনীতি ও রাজস্বনীতির মাধ্যমে । এই দুটি পদ্ধতিতে প্রচুর পরিমাণ অর্থ ও সম্পদ ভারত থেকে ইংল্যান্ডে পাচার করা হয়েছিল।

৬.৩ বিশ শতকের প্রথম দিকে বাংলায় গড়ে ওঠা বিভিন্ন গুপ্ত সমিতির পরিচয় দাও।

উত্তর: স্বদেশী আন্দোলনের শেষ দিকে বিপ্লববাদী। আন্দোলনের ধারাটি বেশি করে দেখতে পাওয়া যায়। এই ধারাটির একটি প্রধান ভিত্তি ছিল বিভিন্ন সমিতিগুলি। আপাতভাবে সমিতিগুলি শরীর চর্চার পাশাপাশি বিভিন্ন সমাজসেবামূলক উদ্যোগ নিত। তার মধ্য দিয়ে মূলত ছাত্র ও যুব সমাজের কাছে স্বদেশের ভাবধারা প্রচার করা হতাে। সেই সময়ে মূলত বিভিন্ন সমিতি কে কেন্দ্র করে বিপ্লবী পন্থায় ব্রিটিশ প্রশাসনের মধ্যে ত্রাস সৃষ্টি করার ধারাটি গড়ে ওঠে। নিবেদন ” নীতির অসারতা হচ্ছিল। অন্যদিকে । স্বদেশী আন্দোলনের পাতীয় কংগ্রেসের ” আবেদন বেড়ে চলেছিল । উপনিবেশিক দমন-পীড়ন। পাশাপাশি 1908 খ্রিস্টাব্দ নাগাদ স্বদেশী আন্দোলন সামাজিক ভাবে দুর্বল হয়ে পড়েছিল। 

সেই পরিস্থিতিতে বিপ্লবীদের অনেকেই উপনিবেশিক প্রশাসনকে সস্ত্রস্ত করে ধাক্কা দিতে চেয়ে ছিলেন। তার ফলে বিপ্লববাদী আন্দোলনের ধারাটি প্রবল হয়ে ওঠে। অত্যাচারী ব্রিটিশ প্রশাসক ও তাদের সহযােগী দেশীয় ব্যক্তিদের চিহ্নিত করতে শুরু করেন বিপ্লবীরা। শুরু হয় ব্যাক্তি হত্যার রাজনীতি। বাস্তবতা শেষ সময়ে জনগণের সামনে উপনিবেশ বিরােধী আন্দোলনের কোনাে কর্মসূচি ছিল না। ফলে উপনিবেশিক দমন পীড়নের পাল্টা সশস্ত্র সংগ্রামের মধ্য দিয়ে ব্রিটিশ শাসককে ত্রাস সৃষ্টি করা অপরিহার্য মনে করেছিলেন। অনেকেই যদিও বিপ্লবীদের সামনে সেটা একমাত্র পথ ছিল না। সবাই নির্বিচারে সেই পথকে সমানভাবে সমর্থনও করেনি ।

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

SWG Academy

Class 8 Model Activity Task Geography Part 8 November

Class 8 Combined Model Activity Task

অষ্টম শ্রেণি

পরিবেশ ও ভূগোল

১. বিকল্পগুলি থেকে ঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখাে : 

১.১ ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করাে—

ক) অন্তঃকেন্দ্রমণ্ডল – পদার্থের তরল অবস্থা 

খ) বহিঃকেন্দ্রমণ্ডল – পদার্থের ঘনত্ব সর্বাধিক 

গ) অ্যাস্থেনােস্ফিয়ার – পরিচলন স্রোতের সৃষ্টি

ঘ) ভূত্বক – লােহা ও নিকেলের আধিক্য 

উত্তর: গ) অ্যাস্থেনোস্ফিয়ার – পরিচলন স্রোতের সৃষ্টি

১.২ রকি ও আন্দিজ পর্বতমালার সৃষ্টি হয়েছে –

ক) মহাসাগরীয়-মহাসাগরীয় অপসারী পাতসীমানা বরাবর 

খ) মহাসাগরীয়-মহাসাগরীয় অভিসারী পাতসীমানা বরাবর 

গ) মহাদেশীয়-মহাদেশীয় অভিসারী পাতসীমানা বরাবর

ঘ) মহাদেশীয়-মহাসাগরীয় অভিসারী পাতসীমানা বরাবর 

উত্তর: ঘ) মহাদেশীয় – মহাসাগরীয় অভিসারী পাতসীমানা বরাবর

১.৩ উত্তর ভারতের স্থলভাগের সীমানা রয়েছে –

ক) পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার সঙ্গে 

খ) নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে 

গ) বাংলাদেশ ও ভুটানের সঙ্গে 

ঘ) মায়ানমার ও শ্রীলঙ্কার সঙ্গে

উত্তর: খ) নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে

১.৪ কর্কটীয় উচ্চচাপ বলয় থেকে নিরক্ষীয় নিম্নচাপ বলয়ের দিকে প্রবাহিত নিয়ত বায়ু হলাে –

ক) দক্ষিণ-পূর্ব আয়নবায়ু 

খ) উত্তর-পূর্ব আয়নবায়ু 

গ) দক্ষিণ-পশ্চিম পশ্চিমাবায়ু

ঘ) উত্তর-পশ্চিম পশ্চিমাবায়ু 

উত্তর: খ) উত্তর-পূর্ব আয়নবায়ু

১.৫ ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করাে —

ক) বজ্রপাতসহ প্রবল বৃষ্টি — সিরাস মেঘ 

খ) জলীয় বাষ্পের জলকণায় পরিণত হওয়ার প্রক্রিয়া – বাষ্পীভবন 

গ) বৃষ্টিচ্ছায় অঞ্চল – পর্বতের প্রতিবাত ঢাল 

ঘ) ঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে সর্বনিম্ন বায়ুচাপ – ঘূর্ণবাতের চোখ

উত্তর: ঘ) ঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে সর্বনিম্ন বায়ুচাপ – ঘূর্ণবাতের চোখ

১.৬ পৃথিবীর বৃহত্তম মিষ্টি জলের হ্রদ হলাে –

ক) হরণ 

খ) ইরি 

গ) সুপিরিয়র

ঘ) মিশিগান 

উত্তর: গ) সুপিরিয়র

১.৭ ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করাে—

ক) নিরক্ষীয় অঞ্চল – সূর্যের তির্যক রশ্মি 

খ) নিরক্ষীয় অঞ্চল- বায়ুর উচ্চচাপ 

গ) মেরু অঞ্চল- বায়ুর উচ্চচাপ

ঘ) মেরু অঞল – সূর্যের লম্ব রশ্মি 

উত্তর: গ) মেরু অঞ্চল- বায়ুর উচ্চচাপ

১.৮ উত্তর আমেরিকার আলাস্কা যে জলবায়ুর অন্তর্ভুক্ত তা হলাে –

ক) ক্রান্তীয় জলবায়ু 

খ) লরেন্সীয় জলবায়ু 

গ) ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ু

ঘ) তুন্দ্রা জলবায়ু 

উত্তর: ঘ) তুন্দ্রা জলবায়ু 

১.৯ দক্ষিণ আমেরিকার লাপ্লাটা নদী অববাহিকায় অবস্থিত বিস্তীর্ণ তৃণভূমি হলাে—

ক) গ্রানচাকো

খ) পম্পাস

গ) ল্যানােস

ঘ) সেলভা 

উত্তর: খ) পম্পাস

 

২. শূণ্যস্থান পূরণ করাে :

২.১ উত্তর-পশ্চিম ভারতে প্রবাহিত একটি স্থানীয় বায়ু হলাে __________ । 

উত্তর: লু

২.২ কোনাে একটি নির্দিষ্ট সময়ে সমপরিমাণ বৃষ্টিপাতযুক্ত স্থানগুলিকে মানচিত্রে __________ রেখার সাহায্যে যুক্ত করা হয় ।

উত্তর: সমবর্ষণ

২.৩ দক্ষিণ আমেরিকার আন্দিজ পর্বতের পশ্চিমে অবস্থিত পৃথিবীর অন্যতম শুষ্ক অঞ্চল __________ মরুভূমি ।

উত্তর: আটকামা

৩. বাক্যটি সত্য হলে ‘ঠিক’ এবং অসত্য হলে ‘ভুল’ লেখাে :

৩.১ রাত্রিবেলা স্থলভাগ থেকে সমুদ্রের দিকে সমুদ্রবায়ু প্রবাহিত হয়। 

উত্তর: ভুল

৩.২ আপেক্ষিক আদ্রর্তার সাথে উয়তার সম্পর্ক ব্যস্তানুপাতিক।

উত্তর: ঠিক

৩.৩ জুলাই-অগাস্ট মাসে আর্জেন্টিনায় গ্রীষ্মকাল বিরাজ করে। 

উত্তর: ভুল

 

৪. একটি বা দুটি শব্দে উত্তর দাও :

৪.১ রিখটার স্কেলের সাহায্যে কী পরিমাপ করা হয়? 

উত্তর: ভূমিকম্পের তীব্রতা

৪.২  কোন প্রকার শিলার স্তরে খনিজ তেল পাওয়া যায়?

উত্তর: পাললিক শিলার স্তরে খনিজ তেল পাওয়া যায়

৪.৩ ভারতের কোন প্রতিবেশী দেশ মশলা উৎপাদনে বিখ্যাত?

উত্তর: শ্রীলংকা

৫. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :

৫.১ ভূ-অভ্যন্তরের কোন স্তরে কীভাবে পৃথিবীর চৌম্বক ক্ষেত্রের সৃষ্টি হয়েছে? 

উত্তর: ভূ-অভ্যন্তরের কেন্দ্রমন্ডলে অন্ত: কেন্দ্র মন্ডলের চারদিকে রয়েছে বহি: কেন্দ্রমন্ডল। এই স্তর 2900 কিমি. থেকে 5100 কিমি. পুরু। এই স্তর প্রধানত: লোহা, নিকেল, কোবাল্ট দ্বারা গঠিত। এই স্তরের তাপমাত্রা খুব বেশি প্রায় 4000 থেকে 5000 সে.। এই স্তরের চাপ, তাপ ও ঘনত্ব বেশি, তবে অন্ত: কেন্দ্র মন্ডলের তুলনায় কম। প্রচণ্ড তাপে ও চাপে এই অংশের পদার্থসমূহ থকথকে বা সান্দ্র অবস্থায় রয়েছে। এই স্তর অর্ধ কঠিন অবস্থায় পৃথিবীর অক্ষের চারদিকে আবর্তন করে চলেছে। সান্দ্র অবস্থায় থাকা লোহা প্রচন্ড গতিতে ঘুরতে ঘুরতে বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র তৈরি করেছে, যা থেকে পৃথিবীর চৌম্বক ক্ষেত্র সৃষ্টি হয়েছে।

৫.২ পাকিস্তানে জলসেচের সাহায্যে কীভাবে কৃষিকাজ করা হয়? 

উত্তর: পাকিস্তানের কৃষিকাজ মূলত জলসেচের উপর নির্ভরশীল। পাকিস্তানের জলসেচ প্রধানত খালের মাধ্যমে হয়ে থাকে। সিন্ধু ও তার উপনদীগুলােতে বাঁধ দিয়ে জলাধার তৈরি করা হয়েছে। জলাধারগুলাে থেকে একাধিক সেচ খাল কাটা হয়েছে। পশ্চিমের শুষ্ক অঞ্চল গুলােতে মাটির নিচে সুরঙ্গ কেটে ক্যারেজ প্রথার মাধ্যমে কৃষিক্ষেত্রে জল নিয়ে যাওয়া হয়।

৫.৩ উত্তর আমেরিকার প্রেইরি সমভূমি দুগ্ধশিল্পে উন্নত কেন? 

উত্তর: উত্তর আমেরিকার প্রেইরী সমভূমি হল পৃথিবীর দুগ্ধশিল্পে উন্নত অঞ্চলগুলির মধ্যে অন্যতম। বিভিন্ন অনুকূল প্রাকৃতিক ও অর্থনৈতিক অবস্থাকে কাজে লাগিয়ে ‌এখানকার প্রেইরী তৃণভূমিতে অসংখ্য উন্নত মানের দুগ্ধ প্রদায়ী পশু পালন করা হয়, যাদের থেকে প্রাপ্ত দুগ্ধের নির্ভর করে এই অঞ্চলে দুগ্ধ শিল্প উন্নতি লাভ করেছে। নিম্নে উত্তর আমেরিকার প্রেইরি সমভূমির দুগ্ধ শিল্পে উন্নতির কারণগুলি আলোচনা করা হলো-

১)বিস্তীর্ণ তৃণভূমি-পশুপালনের জন্য ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র তৃণ যুক্ত বিস্তীর্ণ তৃণভূমি বিশেষ উপযোগী। উত্তর আমেরিকার মধ্যভাগের বিস্তীর্ণ সমভূমি অঞ্চলে প্রেইরি তৃণভূমি সৃষ্টি হয়েছে, যা এই অঞ্চলের দুগ্ধ প্রদায়ী পশুপালনের তথা দুগ্ধ শিল্পের উন্নতিতে সহায়তা করেছে।

২)পশুখাদ্যের যোগান-উত্তর আমেরিকার প্রেইরি সমভূমিতে পশু খাদ্যের  উপযোগী হে, ক্লোভার, আলফা আলফা ঘাস এবং ভুট্টা, যব, ওট, রাই, জোয়ার ইত্যাদি  প্রচুর পরিমাণে চাষ করা হয়।ফলে এই অঞ্চলে দুগ্ধ প্রদায়ী পশুপালনের জন্য পশু খাদ্যের অভাব হয় না।

৩)নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু-পশুপালনের জন্য নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু বিশেষ সহায়ক।কারণ এই ধরনের জলবায়ু দুগ্ধ প্রদায়ী পশুপালন এবং বিভিন্ন দুগ্ধজাত দ্রব্য সংরক্ষণের উপযোগী।উত্তর আমেরিকার প্রেইরি সমভূমি অঞ্চলের জলবায়ু নাতিশীতোষ্ণ প্রকৃতির হওয়ায় অঞ্চলটি দুগ্ধ শিল্পে উন্নত।

৪)জলের যোগান-পশুপালন ও দুগ্ধ শিল্পে র জন্য যে প্রচুর পরিমাণে জলের প্রয়োজন হয় তা এখানকার বিভিন্ন নদী ও হ্রদ  থেকে সহজেই পাওয়া যায়।

৫)হিংস্র জীব জন্তুর অভাব-উত্তর আমেরিকার প্রেইরী সমভূমি অঞ্চলে হিংস্র জীবজন্তুর উপদ্রব কম হওয়ায় বিভিন্ন দুগ্ধ প্রদায়ী গবাদি পশুপালন ও তাদের রক্ষণাবেক্ষণ সহজ ও স্বল্প ব্যয়সাপেক্ষ হয়, বা পরোক্ষভাবে এই অঞ্চলে দুগ্ধশিল্পের উন্নতিতে সহায়তা করেছে।

৬)উন্নত প্রজাতির পশু পালন-উত্তর আমেরিকার প্রেইরি সমভূমি অঞ্চলের বিভিন্ন পশুচারণ ক্ষেত্রগুলিতে জার্সি, ফ্রিজিয়ান, সুইস ব্রাউন ইত্যাদি উন্নত প্রজাতির দুগ্ধ প্রদায়ী গবাদি পশু পালন করা হয়। ফলে এই অঞ্চলে দুগ্ধ শিল্পের প্রয়োজনীয় দুগ্ধের অভাব হয় না।

৭)উন্নত পরিবহন ব্যবস্থা-দুগ্ধজাত দ্রব্য দ্রুত পচনশীল বলে সেগুলিকে খুব তাড়াতাড়ি উৎপাদন কেন্দ্র থেকে সংরক্ষণ কেন্দ্রে অথবা বাজারে নিয়ে যাওয়ার জন্য উন্নত পরিবহন ব্যবস্থার প্রয়োজন হয়।উত্তর আমেরিকার প্রেইরি সমভূমি অঞ্চলের পরিবহন ব্যবস্থা উন্নত হওয়ায় দুগ্ধ শিল্পের উন্নতি ঘটেছে।

৮)উন্নত সংরক্ষণ ব্যবস্থা-দুগ্ধ ও অন্যান্য দুগ্ধজাত দ্রব্য দ্রুত পচনশীল সামগ্রী বলে সেগুলিকে যথাযথ সংরক্ষণ করা প্রয়োজন। উত্তর আমেরিকার প্রেইরি অঞ্চলে এই দুগ্ধ ও দুগ্ধজাত দ্রব্য সংরক্ষণের উপযোগী অসংখ্য হিমায়ণ যুক্ত সংরক্ষণ কেন্দ্র আছে।ফলস্বরূপ দুগ্ধ শিল্পের উন্নতি ঘটেছে।

৯)পশুজাত দ্রব্যের চাহিদা-উত্তর আমেরিকার প্রেইরী সমভূমিতে পালিত পশুগুলি থেকে প্রাপ্ত বিভিন্ন দুগ্ধজাত দ্রব্য উৎকৃষ্ট মানের হওয়ায় দেশের অভ্যন্তরে ও বিদেশের বাজারে এগুলির ব্যাপক চাহিদা আছে, যা এই অঞ্চলের দুগ্ধ শিল্পের  উন্নতিকে ত্বরান্বিত করেছে।

৩.১ সব মেঘ থেকে বৃষ্টি হয় না কেন?

উত্তর: বায়ুমণ্ডলে অবস্থিত জলীয়বাষ্প, ধূলিকণা প্রভৃতি একাধিক উপাদান ঘনীভূত হয়ে মিলিত হয়ে জলকণায় পরিণত হলে মেঘ সৃষ্টি হয়। মেঘের মধ্যে অবস্থিত জলকণায় ব্যাস ২ মিলিমিটারের বেশি না হলে মেঘ সৃষ্টি হলেও জলকণা বৃষ্টিপাত রূপে ঝরতে পারে না।বায়ুমণ্ডলের মধ্যে আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ ১০০% না হলে জলীয়বাষ্প সম্পূর্ণ রূপে ঘনীভূত হতে পারে না। তাই অনেক ক্ষেত্রে মেঘ করলেও বৃষ্টি সেরকম হয়না।যে সমস্ত মেঘ বায়ুমণ্ডলে বিখিপ্তভাবে অবস্থান করে সেই মেঘে জলকণা খুব সহজে একে অপরের সাথে ঘনীভূত হতে পারেনা।ফলে বৃষ্টিপাত হয়না বললেই চলে ।

৬. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

৬.১ অভিসারী পাতসীমানাকে কেন বিনাশকারী পাতসীমানা বলা হয় তা উদাহরণসহ ব্যাখ্যা করাে। 

উত্তর: অভিসারী পাত সীমানা বরাবর দুটি পাত সংঘর্ষে লিপ্ত হলে ভারী পাতটি হালকা পাতের নিচে প্রবেশ করে এবং পরবর্তীকালে ভারী পাতটি ভূগর্ভের উষ্ণতার সংস্পর্শে এসে গলে ম্যাগমায় পরিনত হয় অর্থাৎ বিলুপ্ত হয়। তাই অভিসারী পাত সীমানাকে বিনাশকারী পাত সীমানা বলা হয়।

৩.২ ‘আমাজন অববাহিকার ক্রান্তীয় বৃষ্টিঅরণ্য দুর্গম প্রকৃতির’– ভৌগোলিক কারণ ব্যাখ্যা করো।

উত্তর: নিরক্ষীয় জলবায়ু অঞ্চলের অন্তর্গত আমাজন অববাহিকার ক্রান্তীয় বৃষ্টিঅরণ্য একাধিক ভৌগোলিক কারণে হয়ে উঠেছে দুর্গম প্রকৃতির

• সূর্য সারাবছর লম্বভাবে কিরণ দেওয়ায় আমাজন অঞ্চলে অসহ্য উষ্ণ এক আবহাওয়া বিরাজ করে। সাথে সাথেই প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়। ফলে এই অববাহিকার ক্রান্তীয় বৃষ্টি অরণ্য দুর্ভেদ্য এক গভীর অরণ্য হয়ে উঠেছে।

• এই অঞ্চলের বনভুমির গাছ অত্যন্ত ঘন চাঁদোয়ার মতো অবস্থান করায় মাটির নীচে ঠিকঠাক সূর্যালোক প্রবেশ করতে পারে না। ফলে স্যাঁতস্যাঁতে মাটিতে লতাপাতা, গভীর ঝোপঝাড়, বিষাক্ত কীটপতঙ্গ, জীবজন্তু, ছত্রাকের আধিক্য চোখে পড়ে। এছাড়া সারা বছর পরিচলন বৃষ্টিপাতের কারণে বনভূমি জলমগ্ন থাকে।

উল্লেখিত কারণ গুলির জন্য আমাজন অববাহিকার ক্রান্তীয় বৃষ্টি অরন্য দুর্গম এবং নিবিড়তম।

৬.৩ পম্পাস অঞ্চলকে দক্ষিণ আমেরিকার শস্য ভাণ্ডার বলা হয় কেন? 

উত্তর: পম্পাস অঞ্চল হল দক্ষিণ আমেরিকার অন্যতম কৃষি সমৃদ্ধ অঞ্চল। প্রধানত সমতল ভূপ্রকৃতি, নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু, বৃহদায়তন কৃষিজমি, উর্বর পলি মৃত্তিকা ও বায়ুবাহিত লোয়েস মৃত্তিকা, অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার, বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে জলসেচ, সুলভ ও দক্ষ কৃষকের যোগান, কৃষিজাত দ্রব্যের চাহিদা ইত্যাদি অনুকূল প্রাকৃতিক ও অর্থনৈতিক অবস্থাকে কাজে লাগিয়ে দক্ষিণ আমেরিকার পম্পাস অঞ্চলে প্রচুর পরিমাণে গম, বার্লি, আখ, তামাক, তুলো, তিসি, সোয়াবিন, নানা রকম শাক সবজি ও ফল ইত্যাদি উৎপাদন হয়। বিভিন্ন ধরনের ফসল বা শস্য প্রচুর পরিমাণে উৎপাদন হয় বলে পম্পাস অঞ্চলকে দক্ষিণ আমেরিকার শস্য ভান্ডার বলা হয়।

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

৭. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

৭.১ উদাহরণসহ উৎপত্তি অনুসারে আগ্নেয়শিলার শ্রেণিবিভাগ করাে। 

উত্তর: উৎপত্তির বিভিন্নতা অনুসারে আগ্নেয় শিলাকে সাধারণত দু’ভাগে বিভক্ত করা যায়। (i) নিঃসারী শিলা ও (ii) উদ্ বেধী শিলা।

(i) নিঃসারী শিলা: যে ম্যাগমা ভূত্বকের কোন ফাটল ফাটল বা আগ্নেয়গিরির মধ্য দিয়ে বেরিয়ে আসে তাকে লাভা বলে। এই লাভা ভূপৃষ্ঠে এসে শীতল বাতাসের সংস্পর্শে ক্রমশ ঠান্ডা হয়ে পড়ে জমাট বেঁধে কঠিন আকার ধারণ করে আগ্নেয় শিলার গঠন করে এরূপে সৃষ্ট আগ্নেয় শিলাকে নিঃসারী শিলা বলে। খুব তাড়াতাড়ি জমে যায় বলে এই জাতীয় শিলার কনা সুুুুুক্ষ্ম হয়। ব্যাসল্ট এই জাতীয় শিলা।

(ii) উদবেধী শিলা: ম্যাগমা কখনো কখনো ভূপৃষ্ঠের উপরে আসতে পারে না, পৃথিবীর অভ্যন্তরে জমাট বেধে যায়, এই জাতীয় শিলাকে উদবেধী শিলা বলে। এই জাতীয় আগ্নেয়শিলায় বড় বড় আকারে দানা জমা হয়। এই শিলা অতি ধীরে ধীরে দৃঢ়ভাবে জমাট বাঁধে সেজন্য এতে ফাটল খুব কম থাকে।

       উদবেধী শিলাকে দু’ভাগে বিভক্ত করা যায় পাতালিক ও উপ পাতালিক শিলা।

পাতালিক শিলা : ভূগর্ভের বহু নিচে অনেক বছর ধরে উত্তপ্ত গলিত পদার্থ খুব ধীরে ধীরে শীতল হয়ে কঠিন হয় তাকে পাতালিক শিলা বলে। ধীরে ধীরে দীর্ঘ সময় ধরে শীতল হওয়ায় এদের কনা খুব বড় বড় হয়। গ্রানাইট ও গ্যাব্রো এই জাতীয় শিলা।

উপপাতালিক শিলা: ভূত্বকের কোন দুর্বল অংশে বা ফাটলের মধ্যে ম্যাগমা পাতালিক শিলা অপেক্ষা দ্রুত শীতল হয়, কিন্তু নিঃসারী শিলার মত অত দ্রুত শীতল না হয়, তবে পাতালিক ও নিঃসারী শিলার মধ্যাবস্থার  এই জাতীয় শিলাকে উপ পাতালিক শিলা বলে।  ব্যাসল্ট এই জাতীয় শিলা।

৭.২ ‘বায়ুচাপ বলয়গুলির অবস্থান পরিবর্তন দুই গােলার্ধের ৩০° থেকে ৪০° অক্ষরেখার মাঝের স্থানগুলির জলবায়ুর উপর বিশেষ প্রভাব ফেলে’– উপযুক্ত উদাহরণসহ বিষয়টি ব্যাখ্যা করাে। 

উত্তর: বায়ুচাপ বলয়গুলির নিয়মিত অবস্থান পরিবর্তন ঘটে। এই অবস্থান পরিবর্তন,দুই গােলার্ধের ৩০° থেকে ৪০° অক্ষরেখার মাঝের স্থানগুলির জলবায়ুর ওপর বিশেষভাবে প্রভাব লক্ষ্য করা যায়। এই অঞ্চলগুলােতে গ্রীষ্মকালে আয়নবায়ু এবং শীতকালে পশ্চিমা বায়ুর দ্বারা প্রভাবিত হয়। যেমন–

(i) সূর্যের উত্তরায়নের সময় কর্কটীয় উচ্চচাপ বলয়টি উত্তর দিকে সরে যায়। ফলে গ্রীষ্মকালে স্থলভাগ থেকে আগত উত্তর-পূর্ব আয়ন বায়ুর প্রভাবে ভূমধ্যসাগরের সংলগ্ন দেশগুলােতে বৃষ্টিপাত হয় না বললেই চলে।

(ii) আবার সূর্যের দক্ষিণায়নের সময় কর্কটীয় উচ্চচাপ বলয়টি দক্ষিণ দিকে সরে যাওয়ায় ভূমধ্যসাগরের উপকূলবর্তী অঞ্চলে দক্ষিণ-পশ্চিম পশ্চিমা বায়ু প্রবাহিত হয়।এরই ফলে শীতকালে এই অংশে জলভাগের ওপর দিয়ে বয়ে আসা দক্ষিণ-পশ্চিম পশ্চিমা বায়ুর প্রভাবে বেশি পরিমাণে বৃষ্টিপাত হয়।

৪. চিত্রসহ শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত সৃষ্টির প্রক্রিয়াটি বর্ণনা করো।

উত্তর: শৈল’ কথার অর্থ পর্বত আর ‘উৎক্ষেপ’ হলো ওপরে ওঠা। পর্বত দ্বারা বাধা পেয়ে বায়ু উৎক্ষিপ্ত হয়ে বৃষ্টিপাত হওয়ায় এই বৃষ্টির নামে শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত।

সমুদ্রের দিক থেকে আসা জলীয়বাষ্পযুক্ত আর্দ্র বায়ুর প্রবাহ পথে আড়াআড়ি ভাবে কোনো পর্বত বা উচ্চভূমি অবস্থান করলে ঐ বায়ু পর্বত বা উচ্চভূমিতে বাধা পেয়ে ঐ পর্বত বা উচ্চভূমির ঢাল বেয়ে ওপরের দিকে উঠে যায়। ঊর্ধ্বগামী এই বায়ু ক্রমশ প্রসারিত হয় ও ঠাণ্ডা হয়। আরও ওপরে উঠলে এই বায়ু সম্পৃক্ত হয়ে পড়ে এবং ঘনীভূত হয়ে বৃষ্টিপাত ঘটায়। এই বৃষ্টি হল শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত পর্বতের যে ঢাল বরাবর বায়ু ওপরের দিকে ওঠে ও বৃষ্টিপাত ঘটায় সেই ঢাল হলো প্রতিবাত ঢাল। আর এর বিপরীত যে ঢাল বরাবর বায়ু নীচের দিকে নামে, সেই ঢাল হলো অনুবাত ঢাল।

প্রতিবাত ঢাল প্রচুর বৃষ্টিপাত ঘটানোর পর বায়ু যখন পর্বতের অনুবাত ঢালে পৌঁছায় তখন সেই বায়ুতে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ যথেষ্ট কমে যায়। এছাড়া বায়ু যত নীচের দিকে ঢালের উষ্ণতার স্থানে নামতে শুরু করে বায়ুর উষ্ণতা তত বাড়তে থাকে। ফলে বায়ুর জলীয়বাষ্প ধারণের ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ায় বায়ু অসম্পৃক্ত হয়ে পড়ে। এই কারণে অনুবাত ঢাল প্রতিবাত ঢাল অপেক্ষা বৃষ্টিপাত খুবই কম হয়।তাই পর্বতের অনুবাত ঢাল বৃষ্টিপাত অঞ্চল নামে পরিচিত ।

Class 8 geography part 6

 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education) – Click Here

ALL Class ALL Model Activities Click Here
 Class 6 Model Activity Task Part 8 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
 Class 6 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here
 Class 7 Model Activity Task Part 8 (Bengali, English, History, Geography )Click Here

 Class 7 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)

Click Here
 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
 Class 8 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here
Class 9 Model Activity Task Part 8 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
Class 9 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here
Class 10 Model Activity Task Part 8 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
Class 10 Model Activity Task Part 8 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here

Leave a Comment

Your email address will not be published.