StudyWithGenius

WBJEEB ANM GNM & Various Competitive Exams বংশগতি ও কয়েকটি সাধারণ জিনগত রোগ | Short Notes

WBJEEB ANM GNM study material: অসম্পূর্ণ প্রকটতা, অ্যালিল (Allele), ক্রস (Cross), জাইগোট (Zygote), জিন (Gene), জিনোটাইপ (Genotype), জিনোম (Genome), ডিউটেরোনোপিয়া (Deuteranopia), থ্যালাসেমিয়া (Thalassemia)

Wbjee anm gnm Heredity and some common genetic diseases important notes short questions

অসম্পূর্ণ প্রকটতা (Incomplete dominance) : যখন দুটি প্রকট জিন একসঙ্গে অবস্থান করে, তখন একটির জিনের বৈশিষ্ট্য প্রকাশ না ঘটিয়ে প্রকটতার অন্তর্বর্তী বৈশিষ্ট্য প্রকাশ করে।

অ্যালিল (Allele) : একই জিনের বিভিন্ন রূপ।

ক্রস (Cross) : ক্রস’ কথাটির অর্থ হল যৌন জনন। একটি পুংগ্যামেট ও একটি স্ত্রী গ্যামেটের নিষিক্তকরণ বা মিলনই হল ‘ক্রস।

জাইগোট (Zygote) : পুং ও স্ত্রী গ্যামেটের মিলনে যে ডিপ্লয়েড (2n) কোশ সৃষ্টি হয়।

জিন (Gene) : বংশগতির গঠনগত ও কার্যগত একক।
জিনোটাইপ (Genotype) : যে অন্তনির্হিত জিন বা জিনের সমাহারের জন্য জীবের কোনো চরিত্র প্রকাশ পায়।

জিনোম (Genome) : ডিপ্লয়েড জীবের হ্যাপ্লয়েড ক্রোমোজোম সেটের সমস্ত জিন।

ডিউটেরোনোপিয়া (Deuteranopia) : সবুজ বর্ণান্ধতার অপর নাম।

থ্যালাসেমিয়া (Thalassemia) : প্রচ্ছন্ন অটোজোমাল জিন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত RBC-র বিশৃঙ্খলাজনিত একটি বংশগত রোগ।

প্রকট বৈশিষ্ট্য (Dominant characteristics) : যে বৈশিষ্ট্য অন্য কোনো বিপরীতধর্মী বৈশিষ্ট্যের প্রকাশে বাধা দেয়।
প্রচ্ছন্ন বৈশিষ্ট্য (Recessive characteristics) : যে বৈশিষ্ট্য অন্য কোনো বৈশিষ্ট্যের উপস্থিতিতে সুপ্ত থাকে।

প্রোটোনোপিয়া (Protonopia) : লাল বর্ণান্ধতার অপর নাম।
ফিনোটাইপ (Phenotype) : জীবের কোনো চরিত্রের বাহ্যিক প্রকাশ।

■ বর্ণান্ধতা (Colour blindness) : X-ক্রোমোজোমস্থিত জিনের মিউটেশনের ফলে যে বৈশিষ্ট্যের বহিঃপ্রকাশে যারা বিভিন্ন বর্ণের পার্থক্য করতে পারে না।

■ বংশগতি (Heredity) : জনিতৃর চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের বংশ

পরম্পরায় অপত্যের দেহে সঞ্চারণ।

◆মিউটেশন (Mutation) : জীবের মধ্যে সঞ্চারণযোগ্য হঠাৎ জেগে ওঠা স্থায়ী কোনো পরিবর্তন।

মেন্ডেলবাদ (Mendelism) : মেন্ডেল আবিষ্কৃত মৌলিক তত্ত্ব।

লোকাস (Locus) : ক্রোমোজোমের উপর যে স্থানে কোনো জিন অবস্থান করে।

সংকর (Hybrid) : দুটি ভিন্ন বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন জীবের মিলনের ফলে সৃষ্ট মিশ্র বৈশিষ্ট্যযুক্ত জীব।

হিমোফিলিয়া (Haemophilia) : একপ্রকার রক্তক্ষরণ জনিত বংশগত রোগ। এটি দুই প্রকার। হিমোফিলিয়া- A এবং হিমোফিলিয়া-B

◆ আলফা থ্যালাসেমিয়ার জিন 16 নং ক্রোমোজোমে এবং বিটা থ্যালাসেমিয়ার জিন 11 নং ক্রোমোজোমে অবস্থান করে।

ক্রিস ক্রস উত্তরাধিকার : মাতামহের (Grandfather) X ক্রোমোজোমস্থিত প্রচ্ছন্ন জিনের বৈশিষ্ট্য যদি কন্যার মাধ্যমে তার দৌহিত্রে (Grandson) সঞ্চারিত হয়, তাহলে তাকে ক্রিস-ব্রুস উত্তরাধিকার বলে।

যমজ : একটি শুক্রাণু ও একটি ডিম্বাণুর মিলনে উৎপন্ন জাইগোট থেকে যদি দুটি সন্তান জন্মায়, তাকে সদৃশ যমজ বলে। এরা দুটিই পুত্র বা দুটিই কন্যা এবং হুবহু দেখতে একরকম হয়। অপরপক্ষে, দুটি শুক্রাণু ও দুটি ডিম্বাণুর মিলনে উৎপন্ন দুটি জাইগোট থেকে যদি দুটি শিশু উৎপন্ন হয় তাহলে তাকে অসদৃশ যমজ বলে। এরা হুবহু একইরকম হয় না। এক্ষেত্রে দুটিই পুত্র বা কন্যা অথবা একটি পুত্র ও একটি কন্যা জন্মায়।

হোলাক্ট্রিক জিন : পুরুষদের Y ক্রোমোজোমে অবস্থিত প্রকট জিন থাকলে তা উত্তরাধিকার সূত্রে পুত্রদের মধ্যে সঞ্চারিত হয়।এই ধরনের জিনকে হোলান্ড্রিক বলে। যেমন—পুরুষদের কানের লোম।

■মানুষের দেহে স্বাভাবিক অবস্থায় ডিপ্লয়েড ক্রোমোজোমের সংখ্যা 23 জোড়া অর্থাৎ 46টি। এর মধ্যে 22 জোড়া অটোজোম বা দেহ ক্রোমোজোম এবং একজোড়া সেক্স ক্রোমোজোম বা যৌন ক্রোমোজোম। অটোজোম দেহের কেবলমাত্র দৈহিক বৈশিষ্ট্যের প্রকাশ ঘটায়, আর যৌন ক্রোমোজোম লিঙ্গ নির্ধারণে মুখ্য ভূমিকা পালন করে। যৌন ক্রোমোজোম দু-প্রকার– X ও Y |

■পুরুষের দেহকোশে 22 জোড়া অটোজোমের (A) সঙ্গে থাকে একজোড়া ভিন্ন প্রকৃতির যৌন ক্রোমোজোম যার একটি X, অপরটি Y (44A + XY)। অপরদিকে মহিলার দেহকোশে থাকে 22 জোড়া অটোজোম এবং একজোড়া একই প্রকৃতির যৌন ক্রোমোজোম যার দুটিই X (44A + XX)।

◆ফিলােজফিক জুয়লজিক’ গ্রন্থটির রচয়িতা হলেন—ল্যামার্ক
◆মেণ্ডেলের একসংকর জননে জিনােটাইপের অনুপাত হল—1:2:1
◆মেণ্ডেলের দ্বিসংকর জননে F, জনুতে ফিনােটাইপের অনুপাত হলাে—9:3:3:1

মিউটেশান: জীবকোশের প্রোটোপ্লাজমের সংগঠনের আকস্মিক পরিবর্তন ঘটিয়ে নতুন প্রজাতির উৎপত্তি হওয়াকে মিউটেশান বা পরিব্যক্তি বলে।
মেণ্ডেলের একসংকর জননে
ফিনোটাইপ অনুপাত = ৩ লম্বা ( TT, Tt, Tt) : ১ বেঁটে (tt)
জিনোটাইপ অনুপাত= ১ বিশুদ্ধ লম্বা ( TT) : ২ সংকর লম্বা (Tt) : ১ বিশুদ্ধ বেঁটে (tt)
মেণ্ডেলের দ্বিসংকর জননে
ফিনোটাইপ অনুপাত = ৯ : ৩ : ৩ : ১
জিনোটাইপ অনুপাত = ১ : ২ : ২ : ৪ : ১ : ২ :১ : ২ : ১

লিঙ্গ নির্ধারণে কোন্ ক্রোমোজোমের ভূমিকা আছে ?

উত্তরঃ সেক্স ক্রোমোজোম (X ও Y) ।

হিমোফিলিয়া রোগে কোন প্রকার ক্রোমোজোম গটিত রোগ?

উত্তরঃ ‘X’ ক্রোমোজোম ঘটিত বংশগত রোগ।

হিমোফিলিয়া আক্রান্ত রোগী কতদিন বাঁচে ?

উত্তরঃ সর্বাধিক 20 বছর ।

বর্ণান্ধতা রোগে রোগী সাধারণত কোন্ বর্ণ চিনতে পারে না ?

উত্তরঃ লাল -সবুজ বর্ণ।

TT’ সংকেত দ্বারা একটি মটর গাছের ক্ষেত্রে কী। বোঝানো হয়েছে।

উত্তরঃ বিশুদ্ধ লম্বা বোঝানো হয়েছে।

জেনেটিক কোড কে আবিষ্কার করেন ?

উত্তরঃ ড. হরগোবিন্দ খোরান।

মানুষের Y ক্রোমোজোম বাহিত একটি বৈশিষ্ট্য কী ?

উত্তরঃ পুরুষদের কানের লতিতে চুল।

সংকরায়ণ পরীক্ষায় 1:2:1 অনুপাতকে কী বলে ?

উত্তরঃ জিনোটাইপিক অনুপাত বলে।

রাজকীয় হিমোফিলিয়া কোন পরিবারে দেখা গিয়েছিলো ?

উত্তরঃ ইংল্যান্ডের রাজপরিবারে দেখা গিয়েছিলো।

β- থ্যালাসেমিয়া মেজর এর অপর নাম কী ?

উত্তরঃ কুলির অ্যানিমিয়া

প্রোটোনোপিয়া আক্রান্ত ব্যক্তি কোন বর্ণ চিনতে পারে না ?

উত্তরঃ লাল বর্ণ

TDF ফ্যাক্টর, লিঙ্গ নির্ধারণ, SRY-জিন, Y-ক্রোমোজোম এর মধ্যে সঠিক উত্তর কোনটি?
উত্তর:-  লিঙ্গ নির্ধারণ।

দ্বিতীয় অপত্য জনু বা F, জনু কাকে বলে ?
উত্তর:-  সংকরায়ণ পদ্ধতিতে প্রথম অপত্য জনু বা F জনু থেকে সৃষ্ট অপত্য জীবের জনুকে দ্বিতীয় অপত্য জনু বা F, জনু বলে।

মিউটেশনের ফলে সৃষ্ট নতুন ফিনােটাইপকে বলা হয় ?
উত্তর:- মিউট্যান্ট।

দ্বিসংকর জনন F, জনু থেকে কত ধরনের গ্যামেট তৈরি হয় ?
উত্তর:-  চার ধরনের।

হেটেরােজাইগােট জীবে প্রকট জিনের প্রকট ফিনাে টাইপরূপে সম্পূর্ণভাবে প্রকাশ না পাওয়ার ঘটনাকে কী বলে ?
উত্তর:- * অসম্পূর্ণ প্রকটতা।

মিউটন কী ?
উত্তর:- মিউটেশনে সক্ষম, RNA-এর ক্ষুদ্রতম অংশটি হল মিউটন।

অটোজোমাল জিন কাকে বলে ?
উত্তর: যে-সমস্ত জিনগুলি অটোজোমের মাধ্যমে বংশপরম্পরায় বাহিত হয়, তাদের অটোজোমাল জিন বলে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.