StudyWithGenius

Class 8 Model Activity Task Part 6 September New 2021 | অষ্টম শ্রেণী মডেল অ্যাক্টিভিটি | Bengali,English,History Geography

Class 8 All Subject Model Activity Task Part 6

class 8 model activity task part 6, class 8 model activity task part 6 answer, class 8 model activity task part 6 bengali, class 8 model activity task part 6 chemistry, class 8 model activity task part 6 download, class 8 model activity task part 6 english, class 8 model activity task part 6 full, class 8 model activity task part 6 geography, class 8 model activity task part 6 history, class 8 model activity task part 6 in bengali, class 8 model activity task part 6 sastho o sarirsikhkha, class 8 model activity task part 6 math, class 8 model activity task part 6 notes, class 8 model activity task part 6 online, class 8 model activity task part 6 question, class 8 model activity task part 6 question answer, class 8 model activity task part 6 release, class 8 model activity task part 6 science, class 8 model activity task part 6 solution, class 8 model activity task part 6 wbbse

WBBSE West Bengal Board of Secondary Education Class 8 All Subject Part 6 Model Activity Task Solution in Bengali . New Model Activity Task of Class 8 September Answers PDF or Text based answers.

Class 8 Model Activity Task Part 6
SWG Academy

Class 8 Model Activity Task Bengali Part 6 September

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

অষ্টম শ্রেণি

বাংলা

১. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :(প্রতিটি প্রশ্নের মান-2)

১.১ ‘তুমি মানুষ হয়ে পাশে দাড়াও’ – কার পাশে দাঁড়ানোর এই আহ্বান?

উত্তর : মানবিকবোধ সম্পন্ন কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায় ‘দাঁড়াও’ কবিতায় মনুষ্যত্ব, বিবেকবোধ ইত্যাদি গুণসম্পন্ন মানুষকে অসহায় মানুষদের পাশে এসে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। অবক্ষয়ী সমাজে জীবন-যন্ত্রণায় ক্ষতবিক্ষত হয়ে মানুষ অসহায় হয়ে পড়েছে। সুতরাং, মানুষ হয়ে মানুষের ওপর অত্যাচার-উৎপীড়ন না চালিয়ে মানুষের পাশে দাড়ানো উচিত বলে কবি আর্তি জানিয়েছেন।

১.২ ‘রমেশ অবাক হইয়া কহিল, ব্যাপার কী? উত্তরে চাষিরা কী বলেছিল?

উত্তর : শরৎচন্দ্র চট্টপাধ্যায়ের লেখা ‘পল্লীসমাজ পাঠ্যাংশ থেকে জানা যায় যে গ্রামের চাষিদের একমাত্র ভরসা ছিল গাঁয়ের একশো বিঘা জমি। কিন্তু টানা বৃষ্টির ফলে সেই জমিতে জল জমে গেছে। এই জল বার করে দেবার একমাত্র উপায় হল জমিদারির দক্ষিন দিকের বাঁধ কেটে ফেলা। কিন্তু এই বাঁধ লাগোয়া জমিদারির এক জলা আছে যা থেকে জমিদারদের আয় হয় এবং তাই বাঁধ কাটতে তারা চান না। এই গভীর বিপদ থেকে রক্ষা পেতেই তারা দয়ালু জমিদার রমেশের কাছে এসে কেঁদে পড়েছিল।

১.৩ ´একটা ফুলিঙ্গ-হীন ভিজে বারুদের স্তূপ। কাদের – দেখে একথা মনে হয়?

উত্তর : ‘ছন্নছাড়া’ কবিতাটিতে স্ফুলিঙ্গ-হীন ভিজে বারুদের স্তুপ’ বলতে রাস্তায় দাঁড়িয়ে আড্ডা দেওয়া একদল ছন্নছাড়া যুবকের কথা বলা হয়েছে যারা চোঙা প্যান্ট,চোখা জুতো, ও কড়া মেজাজে বিদ্যমান।ওরা আসলে সমাজের শিক্ষিত যুবকের দল যারা বেকারত্ব ও দারিদ্রতার শিকার তাই তাদের ভিতরে শিক্ষা থাকলেও নৈরাজ্যের শিকার হয় অকেজো হয়ে পড়েছে।

১.৪ ‘গাছের জীবন মানুষের জীবনের ছায়ামাত্র। – লেখকের এমন মন্তব্যের কারণ কী?

উত্তর : লেখক জগদীশচন্দ্র বসু গাছকে নিবিড়ভাবে ভালোবেসে তাদের জীবনের বিভিন্ন দিকগুলিকে পর্যবেক্ষণ করে এমন মন্তব্য করেছেন। কারন তার মনে হয়েছে,গাছের বৈশিষ্ট্যগুলি মানুষের মধ্যেকার নানান স্বভাব বৈশিষ্ট্যের অনুরূপ। মানুষের মতো এদের জীবনেও অভাব-অনটন এবং দুঃখকষ্ট আছে। অভাবে পড়ে এরাও মানুষের মত চুরি ডাকাতি করে। মানুষের মধ্যে যেমন সদগুণ আছে, এদের মধ্যেও সেই সগুণের বহিঃপ্রকাশ লক্ষ করা যায়। এরাও একে অন্যকে সাহায্য করে।

১.৫ তবু নেই, সে তো নেই, নেই রে-কী না থাকার যন্ত্রণা পক্তিটিতে মর্মরিত হয়ে উঠেছে?

উত্তর : বুদ্ধদেব বসুর লেখা ‘হাওয়ার গান’ কবিতায় হাওয়াদের বাড়ি নেই অর্থাৎ, আশ্রয় নেই। হাওয়াদের বাড়ি না-থাকায় তারা পৃথিবীর সর্বত্র জলে-স্থলে , পাহাড়ে, বনজঙ্গলে বাড়ির খোঁজ করে বেড়ায় কখনও শহরের ঘন ভিড়ে, কখনও বা জনহীন প্রান্তরে সর্বত্রই তারা বাড়ির খোঁজ করে। তাদের এই কোনো স্থায়ী ঠিকানা বা আপন আশ্রয় না থাকার যন্ত্রণা পক্তিটিতে মর্মরিত হয়ে উঠেছে।

১.৬ ‘ছন্দহীন বুনো চালতার’ – ‘বুনো চালতা’ কে ছন্দহীন বলা হয়েছে কেন?

উত্তর : কবি জীবনানন্দ দাশ পাড়াগাঁর দ্বিপ্রহরকে ভালোবাসেন। সেই নিঝুম দুপুরে জলসিড়ি নদীর পাশে বুনো চালতার শাখাগুলি নুয়ে পড়ে, জলে তাদের মুখ দেখা যায়। কিন্তু বাতাসহীন দুপুরে বুনো চালতার ডালে কোন দোলন দেখা যায় না। প্রকৃতিতে যেন ভিজে বেদনার গল্প আকাশের নীচে কেঁদে কেঁদে ভেসে বেড়াচ্ছে। আর সেই বেদনাতেই বুনো চালতা ছন্দহীন ।

২. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর নিজের ভাষায় লেখো :

২.১ ‘দাঁড়াও’ কবিতার ভাববস্তু আলোচনা করো।

উত্তর :মানবিকবোধ সম্পন্ন কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায় ‘দাঁড়াও’ কবিতাটির মধ্যে মানুষের মানবিকতার অবক্ষয়ের দিকটিকে তুলে ধরেছেন। মানুষ’ শব্দটির মধ্যেই লুকিয়ে আছে ‘মান’ ও ‘হুশ’ এর অর্থ। কিন্তু যত মানুষ আধুনিকতার শিখরে উত্তীর্ণ হয়েছে, ততই মানবিকতার অবক্ষয় দেখা গিয়েছে। মানুষ হয়ে উঠেছে আত্মকেন্দ্রিক, স্বার্থপর, সুযোগসন্ধানী ও ক্ষমতালোভী। মনুষ্যত্ব, বিবেকবোধ ইত্যাদি যেগুলি মানুষের সদগুণ বলে বিবেচিত, সেইসমস্ত গুণসম্পন্ন মানুষকে তিনি অসহায় মানুষদের পাশে এসে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। সেই সমস্তু মানুষের কথা কবি সর্বদা মনে করেন এবং যেভাবেই হোক, প্রতিটি মানুষ প্রতিটি মানুষের পাশে এসে যেন দাঁড়ায় ,এটাই কবিতার ভাববস্তু ।

২.২ ‘রমেশ বিস্ময়ে হতবুদ্ধি হইয়া গেল।‘– রমেশের বিস্ময়ের কারণ কী?

উত্তর : উদ্ধৃত উক্তিটি শরৎচন্দ্র চট্টপাধ্যায়ের লেখা ‘পল্লীসমাজ’ পাঠ্যাংশ থেকে নেওয়া হয়েছে।

রমেশ রমার কাছে বাঁধ কাটার প্রস্তাব নিয়ে উপস্থিত হয় কারন জলায় রমারও অধিকার রয়েছে। তারা দুজনে মত দিলে বেণীর অমত হলেও বাঁধ কেটে তারা জল বার করে দিতে পারবে।রমেশ আশা করেছিল চাষিদের বাঁচাতে বাঁধ কাটায় নিশ্চয় রমার মত থাকবে। সে ভাবে, রমা রাজি হলে একা বেণীর আপত্তিতে কোন কাজ হবে না। কিন্তু রমাকে বিষয়টি জানাতেই সে প্রথমে মাছের বন্দোবস্তের কথা জিজ্ঞাসা করে। রমেশ তখন অত জলে মাছের বন্দোবস্ত করা সম্ভব নয় এবং এই সামান্য ক্ষতিটককে মেনে নিতে অনুরোধ জানালে রমা সোজাসুজি জানিয়ে দেয়, অতগুলো টাকা সে লোকসান করতে পারবে না। রমা তখন তাকে জানাল তার বাধ কাটায় মত নেই এবং রমেশের ধারনা সম্পূর্ণ ভুল প্রমানিত হল। এই অপ্রত্যাশিত আশাভঙ্গে রমেশ হতবুদ্ধি হয়ে গেল।

২.৩ ‘আমি নেমে পড়লুম তাড়াতাড়ি। কথক কোথা থেকে কেন নেমে পড়েছিলেন?

উত্তর : একটি বেওয়ারিশ ভিখিরি গাড়ি চাপা পড়ায় একদল ছন্নছাড়া বেকার যুবক ফাঁকা ট্যাক্সি খুঁজছিল। এমন সময় কবি সহানুভূতিশীল দরদি মনের পরিচয় দিয়ে তাদের গাড়িতে লিফট দিতে চায়। গাড়ি পেয়ে যাওয়ায় গাড়িটিকে নিয়ে তাড়াতাড়ি তারা ঘটনাস্থলে যায়। রক্তে মাংসে দলা পাকিয়ে যাওয়া ভিখিরির শরীরটিকে তারা পাজাকোলা করে তুলে নেয় ট্যাক্সিতে।কিন্তু কবি তাদের মত মানবিক নন, তাই ভিখিরির দেহের রক্তের দাগ থেকে ভদ্রতা ও শালীনতাকে বাঁচানোর জন্য তাড়াতাড়ি গাড়ি থেকে নেমে পড়লেন।

২.৪ জীবনের ধর্ম ‘গাছের কথা” রচনায় কীভাবে ব্যক্ত হয়েছে?

উত্তর : ‘গাছের কথা’ নামক রচনায় বিজ্ঞানাচার্য জগদীশচন্দ্র বসু গাছের জীবনধর্মের আলোচনা প্রসঙ্গে জীবনের স্বাভাবিক ও সাধারণ ধর্ম সম্পর্কে সুচিন্তিত মতামত দিয়েছেন। শুকনো ডাল আর জীবিত গাছের তুলনা করে তিনি বলেছেন— বিকাশ, বৃদ্ধি ও গতি হল জীবনের ধর্ম। শুকনো ডালের এই বৈশিষ্ট্য নেই।‘গতি’ বোঝাতে লেখক লতানো গাছের উদাহরণ দিয়েছেন। বিকাশ ও পরিণতি যে প্রাণের ধর্ম– তা বোঝাতে তিনি বীজ ও ডিমের কথা বলেছেন। উত্তাপ, জল ও মাটির সংস্পর্শে বীজ থেকে অঙ্কুরোদগম হয় এবং তা থেকে যথাসময়ে চারাগাছ বৃদ্ধি পেয়ে পরিণত হয়ে ওঠে। অনুরূপভাবে, মানব জীবনেও উপযুক্ত পরিবেশের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে।

২.৫ ‘কী করে বুঝব, আসলে কী করতে হবে?’— উদ্ধৃতিটির আলোকে ‘বুকু’ চরিত্রটির অসহায়তার স্বরূপ উদ্ঘাটন করো।

উত্তর : বুকুকে দুপুরবেলা তার মা একশোবার ধরে বুঝিয়েছে, সব সময় সত্য কথা বলতে হবে এবং কারও কাছে কোনো কিছু গোপন করা উচিত নয়। কিন্তু পরিবেশ-পরিস্থিতি অনুযায়ী কোথায় কেমন আচরণ করা উচিত তিনি তার শিক্ষা দেননি। তাই অতিথিদের অসময়ে বাড়িতে আসা প্রসঙ্গে মা ও বাবা যে যে মন্তব্য গুলি করেছেন এবং বিরক্তি প্রকাশ করেছেন, সেগুলিকে সে অতিথিদের সামনে প্রকাশ করে দেয়। কারণ, মা ঘরের ভিতরে অসন্তুষ্ট হলেও বাইরে অতিথিদের সামনে খুব আনন্দ করছিলেন। ছেনু মাসিদের সঙ্গে আসা ছেলেটি আলমারি ভেঙে বই বের করে ছড়ালে তাকেও বেশ কয়েকটি কথা শুনিয়ে দেয় বুকু। বাবা অফিস থেকে ফিরে অতিথিদের সম্পর্কে কী মন্তব্য করেছেন, তাও বুকু সবাইকে জানিয়ে দেয়। বুকু বুঝতে পারেনি, বড়োরা যে আচরণ প্রতিদিন ছোটোদের শেখায় সেই আচরণ বাস্তব জীবনে ছোটোরা করে ফেললে বড়ওরা ক্ষেত্রবিশেষে তাদের শেখানো আচরণকেই ভুল বলতে শেখায়। ছোট্ট বুকু ভেবেছিল, মা হয়তো সত্য কথা বললে সন্তুষ্ট হবেন উল্টে যে তাকেই মার খেতে হতে পারে সে ভাবেনি। অর্থাৎ সরল, স্বাভাবিক ছয় বছরের শিশু বুকুর পক্ষে স্থানকাল পাত্র বিবেচনা করে কথা বলার দক্ষতা গড়ে ওঠেনি বলেই সে অসহয়তার সম্মুখীন হয়েছে।

২.৬ ‘আজ সকালে মনে পড়ল একটি গল্প’ গল্পটি বিবৃত করো।

উত্তর : গল্পটি হল, নাটোরে অনুষ্ঠিত প্রভিনশিয়াল কনফারেন্সে বাংলা ভাষার প্রচলন। লেখক-শিল্পী অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুর, তাঁর কাকা রবীন্দ্রনাথ ও অন্যান্যদের সঙ্গে গিয়েছিলেন নাটোরে। সে এক হৈ হৈ রৈ রৈ ব্যাপার। প্রথমে স্পেশাল ট্রেন ও পরে স্টিমারে করে পদ্মা পেরিয়ে নাটোর। এই সম্মেলনের অভ্যর্থনা কমিটির সভাপতি নাটোর-মহারাজ জগদিন্দ্রনাথ। তাঁর ব্যবস্থাপনায় এক রাজকীয় আয়োজন। যেমন— খাওয়াদাওয়া, তেমনই অন্যান্য সব ব্যবস্থা। তারপর যথারীতি শুরু হয় গোলটেবিল বৈঠক এবং বক্তৃতা। ইংরেজিতে যেই বক্তৃতা শুরু হয়, সঙ্গে সঙ্গে ‘বাংলা, বাংলা’ বলে অবনীন্দ্রনাথ ও তাঁর সঙ্গীরা প্রতিবাদ শুরু করেন। এরপর কেউ আর ইংরেজিতে বক্তৃতা করতে পারেননি। এমনকি ইংরেজি দুরস্ত লালমোহন ঘোষও শেষপর্যন্ত বাংলায় বলতে বাধ্য হন। এটি লেখকের মনে রাখার মতোই ঘটনা। এভাবেই কনফারেন্সে বাংলা ভাষা চালু হয়। এ সম্পর্কে লেখক জানান, সেই প্রথম আমরা পাবলিকলি বাংলা ভাষার জন্য লড়লুম।

৩. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

৩.১ নির্দেশক বা বিবৃতিমূলক বাক্যের একটি উদাহরণ

দাও।

উত্তর :  কোন কিছু সাধারণভাবে বর্ণনা করা হয় যে বাক্যে, তাকে বিবৃতিমূলক বাক্য বলে।

যেমনঃ আজ দোকানপাট বন্ধ থাকবে।

৩.২ শূন্যস্থান পূরণ করো :

আবেগসূচক বাক্য

আনন্দ

আহা! কি সুন্দর উপহার!

বিস্ময়

আহা! কি দই খেলাম জন্মজন্মান্তরেও ভুলিব না!

উচ্ছ্বাস

উফ! সমুদ্রের রূপ কি সুন্দর!

ঘৃণা

ছি! কি কুৎসিত মূর্তি!

৩.৩ উদাহরণ দাও :

ক্রিয়াবাচক বিশেষ্য

চিতা বাঘ প্রচন্ড জোরে দৌড়ায়।

সাপেক্ষবাচক সর্বনাম

যারা প্রতিযোগিতায় নাম দিতে চাও তারা শিক্ষিকার কাছে নাম জমা দাও।

সর্বনামের বিশেষণ

তুমি খুব ভালো, আমি তত ভালো নই।

আলংকারিক অব্যয়

তুমি কিন্তু কাজ তা ভালো করলে না।

অসমাপিকা ক্রিয়া

ময়ূর পেখম তুলে নাচছে।

৩.৪ ‘কাঁচা’ ও ‘বসা’ শব্দদুটিকে পাঁচটি ভিন্ন ভিন্ন অর্থে ব্যবহার করে বাক্য রচনা করো।

উত্তর :

                           কাঁচা

1) কাঁচা বয়সে অনেকেই ভুল করে (কম বয়স)

2) তমাল ইংরাজীতে বড্ড কাঁচা (অদক্ষ)

3) আমি কখনই কাঁচা কাজ করি না (অপরিণত বুদ্ধি)

4) কাঁচা মালের অভাবে উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেছে (শিল্পের উৎপাদন)।

5) কাঁচা সোনায় খাদ মিশিয়ে গহনা তৈরী করতে হয় (বিশুদ্ধ)।

                           বসা

1)ছাত্রছাত্রীরা গাছের নীচে বসে আছে।(উপবেশন)

2)বসে বসে খেলে কুবেরের ধন ফুরাতেও সময় লাগে না।( বিনা পরিশ্রমে) 

3)বটতলার মোড়ে স্বপ্নপ্রাপ্ত শিবলিঙ্গ বসিয়ে তপন শিব মন্দির বানানোর পরিকল্পনা করছে।(স্থাপন)

4) কারখানা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বহু শ্রমিক বসে রয়েছে। (কর্মহীন)

5) তার বলা কথা গুলি আমার মনে বসে গেছে। (দাগ কাটা)

৪.বন্যার প্রকোপে গ্রামের বহু কৃষিজমি নদীর গ্রাসে হারিয়ে যাচ্ছে নদীর পাড়গুলির স্থায়ী রক্ষণাবেক্ষণ প্রয়োজন। এ বিষয়ে সংবাদপত্রের সম্পাদকের কাছে একটি চিঠি লেখো।

সম্পাদক

যুগান্তর পত্রিকা

ধারাকান্দী, গৌরীপুর-২২৭০,

কলকাতা

তারিখ: ২৫-০৮-২০২১

বিষয় : নদীর পারগুলির স্থায়ী রক্ষণাবেক্ষনের জন্য আবেদন

মহাশয়,

  বাংলা একটি নদীপ্রধান এলাকা। নদী যেমন আমাদের জল, পলি দিয়ে সমৃদ্ধ করে ঠিক তেমনি প্রচণ্ড বন্যায় নদীর নিকটবর্তী এলাকাগুলি চরম ক্ষতির সম্মুখীন হয়। প্রতি বছর মালদা, মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটাল, হাওড়ার উদয়নারায়ণপুর ও হুগলির খানাকুল বন্যার প্রকোপে জলমগ্ন হয়। কিন্তু তাই নয় বন্যার প্রকোপে গ্রামের বহু কৃষিজমি নদীর গ্রাসে হারিয়ে যাচ্ছে, গৃহহীন ও সম্পদহীন হয়ে যাচ্ছে হাজার হাজার কৃষক। 

     এই প্রতিকূল পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে নদীর পাড়গুলির স্থায়ী রক্ষণাবেক্ষণ প্রয়োজন। নদীর তীরবর্তী এলাকায় যেখানে পাড় সহজেই ভেঙ্গে যাওয়ার আশঙ্কা আছে সেখানে বাঁধ দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। সরকারী ও এলাকার মানুষের উদ্যোগে বেশী করে গাছ লাগাতে হবে এবং ক্ষয়প্রবণ অঞ্চল থেকে বসতি সরিয়ে আনতে হবে।

     নদীর পাড়গুলির স্থায়ী রক্ষণাবেক্ষণ গ্রহণ করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য আপনার বহুল প্রচারিত পত্রিকায় জনগুরুত্বপূর্ণ পত্রটি প্রকাশ করলে বিশেষভাবে বাধিত হব।

                                                   

                                                   বিনীত

                                             রমেশ মজুমদার 

                                                   মালদা 

SWG Academy

Class 8 Model Activity Task English Part 6 September

MODEL ACTIVITY TASK
CLASS – VIII
ENGLISH

ACTIVITY 1

Read the following passage and answer the questions that follow:

King Arthur could gift peace and prosperity to England. The greedy barons were unhappy with King Arthur because he was gentle and just. He married the beautiful Lady Guinevere, daughter of the king of Cornwall. On the wedding day, Merlin took him to a richly gilded pavilion, painted crimson and dark blue. The floor was marbled. In the middle of the room was a huge, round, oak table, richly carved, capable of seating fifty people. This was the famous round table around which gathered King Arthur’s devoted knights. These knights promised that they would help the helpless, be gentle to the weak and punish the wicked. To keep their vows, the knights undertook countless hazardous adventures. The stories of their goodness and kindness spread throughout the country.

A. Complete the following sentences with information from the passage:

(i) The reign of King Arthur gifted England _________________________________ .

Ans: peace and prosperity.

(ii) Lady Guinevere was the daughter of ______________________________ .

Ans: the king of Cornwall.

(iii) The richly gilded pavilion was painted ______________________________ .

Ans: crimson and dark blue.

B. Answer the following questions:

(i) Why were the barons unhappy?

Ans: The barons were unhappy because they were so greedy.

(ii) Give a brief description of the pavilion where Merlin took King Arthur.

Ans: The pavilion was painted crimson and dark blue, the floor was marbled. in the middle of the room was a huge, round, oak table, richly carved, capable of seating fifty people.

(iii) What did the knights promise King Arthur?

Ans: Knights promised to King Arthur that they will help the helpless,

ACTIVITY 2

Change into Indirect speech:

(i) My father said to me, “May God bless you.”

Ans: My father wished me that God might bless you.

(ii) The police officer said, “Don’t go there.”

Ans: The police officer advised no to go there.

(ii) Ravi said, “The earth revolves round the sun.”

Ans: Ravi said that the earth revolves round the sun.

(iv) The Headmaster said to me, “Where do you live?”

Ans: The Headmaster asked me where I lived.

ACTIVITY 3
Classify the Principal clause and the Subordinate clause of the following sentences and write them in the table given below:

(i) As it is raining I will not go out.

(ii) It is certain that a barking dog does not bite.

(iii) This is the place where Rabindranath was born.

(iv) What he says is not true.

(v) If you meet Jarin, give her this book.

 

 

Principal Clause

Subordinate/ Dependent Clause

(i)

I will not go out

As it is raining

(ii)

It is certain

that a barking dog does not bite.

(iii)

This is the place

where Rabindranath was born.

(iv)

It is not true.

What he says

(v)

Give her this book.

If you meet Jarin

 

ACTIVITY 4

Write a paragraph in about 80 words on the life of the famous painter and writer Abanindranath Tagore. You may use the following points:

Birth: 7 August, 1871 at Jorasanko, Calcutta

Parents: Gunendranath Tagore and Saudamini Devi

Siblings: Gagenendranath Tagore and Sunayani Devi

Education: Government College of Art and Craft, Sanskrit College, University of Calcutta

Famous for: Drawing, painting and writing

Notable work of art: Bharat Mata, The passing of Shah Jehan

Important books: Khirer Putul, Raj Kahini, Buro Angla etc.

Death: 5 December 1951

 

Ans: On 7 august, 1871 Abanindranath Tagore was born in Jorasanko, Calcutta. His parents name was Gunendranath Tagore and Saudamini Tagore. Sunayani Dev was his sister. In the 1880s, Tagore studied art at Sanskrit College in Kolkata.

In 1890 round the age of twenty years, Abanindranath attended the Calcutta School of Art where he learnt to use pastels from O. Ghilardi, and oil painting from C. Palmer, European painters who taught in that institution. His idea of modernizing Mughal and Rajput paintings eventually gave rise to modern Indian painting, which took birth at his Bengal school of art. Bharat Mata, The Passing of Shah Jahan, Ganash Janani et al. are some of his most famous paintings. Abanindranath is also regarded as a proficient and accomplished writer. Most of his literary works were meant for children Some of his books like ‘Budo Angla’, ‘Khirer Putul’ and ‘Raj kahini’a re best examples of Bengali children’s literature.The  famous artist died on 5 December, 1951.

SWG Academy

Class 8 Model Activity Task History Part 6 September

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

অষ্টম শ্রেণি

ইতিহাস

১. সঠিক তথ্য দিয়ে নীচের ছকটি পূরণ করো:

প্রতিষ্ঠান

প্রতিষ্ঠাতা

সময়কাল

জমিদার সভা

রাজা রাধাকান্ত দেব, দ্বারকানাথ থাকুর এবং প্রসন্নকুমার ঠাকুর ।

১৮৩৮ সাল

ভারত সভা

সুরেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, শিবনাথ শাস্ত্রী এবং আনন্দমোহন বসু ।

১৮৭৬ সাল

ইন্ডিয়ান লিগ

শিশির কুমার ঘোষ এবং হেমন্ত কুমার ঘোষ ।

১৮৭৫ সাল

 

২. সত্য বা মিথ্যা নির্ণয় করো:

২.১ ১৮৭৬ খ্রিস্টাব্দে লর্ড নর্থব্রুক জারি করেন নাট্যাভিনয় নিয়ন্ত্রণ আইন।

উত্তর: সত্য  

২.২ ১৯০৫ খ্রিস্টাব্দের ১৬ অক্টোবর বাংলা বিভাজনের পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করা হয়।

উত্তর: সত্য  

২.৩ পাঞ্জাবে লালা লাজপত রাই-এর নেতৃত্বে শিবাজি উৎসব চালু হয়।

উত্তর: মিথ্যা

৩. সংক্ষেপে উত্তর দাও (৩০-৪০টি শব্দ) :

৩.১ অর্থনৈতিক জাতীয়তাবাদ কী?

উত্তর: ব্রিটিশ শোষনের পাশাপাশি, সম্পদের বহির্গমন ও অবশিল্পায়ন ইত্যাদি একাধিক কারণে ভারতের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি বেহাল হয়ে যায়। এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে, দাদাভাই নৌরজি, মহাদেব গোবিন্দ রানাদে, রমেশচন্দ্র দত্তের মতো ভারতবর্ষের জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের একাধিক নেতা ভারতের অর্থনৈতিক অবস্থাকে ধ্বংস করার জন্য ব্রিটিশ সরকারকে নানাভাবে দায়ী করতে থাকেন। তাঁরা ভারতীয় অর্থনৈতিক ধ্বংসসাধনে ব্রিটিশ সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রকাশ্য সমালোচনা এবং প্রতিবাদ শুরু করেন। এই কার্যকলাপ, অর্থনৈতিক জাতীয়বাদ নামে পরিচিত।

৩.২ ইলবার্ট বিলকে নিয়ে কেন বিতর্কের সূচনা হয়েছিল?

উত্তর: কোনও ভারতীয় বিচারকের ইউরোপীয়দের বিচার করার অধিকার ছিল না। গভর্নর জেনারেল লর্ড রিপনের আইনসভার সদস্য ইলবার্ট বিচার বিভাগীয় ক্ষেত্রে এই অসংগতি দূর করার চেষ্টা করেন তার প্রস্তাবিত একটি বিলে ভারতীয় বিচারকদের ইউরোপীয়দের বিচার করার অধিকার দেওয়া হয়, এই বিলের প্রতিবাদে ইউরোপীয়রা সংগঠিতভাবে বিদ্রোহ ঘোষণা করে।শ্বেতাঙ্গদের এই আন্দোলনের ফলে ঐ বিল প্রত্যাহার করা হয়। বিল প্রত্যাহার হলে ভারত সভার উদ্যোগে ভারতীয়রা আন্দোলন শুরু করেন। উভয়পক্ষের আন্দোলন ও পাল্টা আন্দোলন ইলবার্ট বিল বিতর্ক নামে পরিচিত।

৪. নিজের ভাষায় লেখো (১২০-১৬০টি শব্দ) :

বিশ শতকের প্রথম দিকে বাংলায় গড়ে ওঠা বিভিন্ন গুপ্ত সমিতির পরিচয় দাও।

উত্তর: বিশ শতকের প্রথমদিকে বঙ্গভঙ্গ এর প্রস্তাব গৃহীত হওয়ার পর থেকেই বাঙালী জাতির মধ্যে ইংরেজ বিদ্বেষ জলন্ত আকার ধারণ করে। এরই মাঝে ইংরেজরা কার্লাইল সারকুলার জারি করে যুব শক্তিকে জাতীয়তাবাদী আন্দোলন থেকে পৃথক করতে চাইল বাংলার বিভিন্ন জায়গায় গড়ে ওঠে একাধিক গুপ্ত সভাসমিতি।

কয়েকটি পরিচিত গুপ্ত সমিতি – ১৯০৫ সালের পর থেকে বাংলায় যে-সমস্ত গুপ্ত সমিতি গড়ে উঠেছিল তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল- মেদিনীপুর সোসাইটি, অনুশীলন সমিতি, যুগান্তর দল, সাধনা সমিতি, সুহৃদ সমিতি, ঢাকা মুক্তি সংঘ প্রভৃতি নাম। এদের মধ্যে সর্বাধিক জাতীয়তাবাদী আন্দোলনকে প্রভাবিত করেছিল অনুশীলন সমিতি এবং যুগান্তর দল।

(i) অনুশীলন সমিতি- বঙ্কিমচন্দ্রের অনুশীলন তত্ত্ব, এই আদর্শের ওপর ভিত্তি করে, ভগিনী নিবেদিতার পৃষ্টপোষকতায় সতীশচন্দ্র বসুর উদ্যোগ এবং ব্যারিস্টার প্রমথনাথ মিত্রের সভাপতিত্বে ১৯০২ সালে অনুশীলন সমিতি গঠিত হয়। লক্ষ্য : – এই সমিতির বেশ কিছু লক্ষ্য ছিল-

• বিভিন্ন রকম শারীরক প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে বাংলার ছাত্র ও যুব সমাজের মধ্যে বৈপ্লবিক আদর্শের বিকাশ ঘটানো।

• বিভিন্ন আগ্নেয়াস্ত্র তৈরি ও ব্যবহারের প্রদ্ধতি সম্পর্কে বিপ্লবিদের শিক্ষিত করে তোলে।

গুরুত্বঃ- তৎকালীন সময়ে এই গুপ্ত সমিতির সদস্য সংখ্য ছিল প্রচুর। বাংলার বিভিন্ন প্রান্তে এই সমিতির শাখাও তৈরি হয়েছিল। তারমধ্যে পুলিনবিহারী দাসের নেতৃত্বে ঢাকা অনুশীলন সমিতি ছিল সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ।

(ii) যুগান্তর দলঃ – প্রমথনাথ মিত্রের সাথে মতবিরোধ ঘটায় অনুশীলন সমিতির একদল সদস্য বারীন্দ্রকুমার ঘোষ ভুপেন্দ্রনাথ দত্ত, উল্লাসকর দত্ত, হেমচন্দ্র দাস প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ ১৯০৬ সালের যুগান্তর দল প্রতিষ্ঠা করেন। যুগান্তর দলের প্রধান লক্ষ্য ছিল সশস্ত্র পথেই বৈপ্লবিক আদর্শ প্রচার। তারা, ‘যুগান্তর’ নামে তাদের মুখপত্রের মাধ্যমে প্রচার চালাত।

(iii) অন্যান্য দলঃ- দুই প্রধান গুপ্ত সমিতি ছাড়াও যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় প্রচেষ্টা বাংলার জাতীয়তাবাদী আন্দোলনে বৈপ্লবিক চিন্তাধারাকে এক অন্য মাত্রা দিয়েছিল।

উপসংহারঃ- পরিশেষে বলা যায়, বাংলার গুপ্ত সভা-সমিতি গুলি সম্পূর্ণ সফল ভাবে তাদের কাজ করতে পারনি কিন্তু তাদরে বৈপ্লবিক চিন্তাধারা জাতীয়তাবাদী আন্দোলনকে প্রভাবিত করেছিল ।।

SWG Academy

Class 8 Model Activity Task Geography Part 6 September

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

অষ্টম শ্রেণি

পরিবেশ ও ভূগোল

১. বিকল্পগুলি থেকে ঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখো :

১.১ ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করো—

ক) নিরক্ষীয় অঞ্চল – সূর্যের তির্যক রশ্মি

খ) নিরক্ষীয় অঞ্চল— বায়ুর উচ্চচাপ

গ) মেরু অঞ্চল- বায়ুর উচ্চচাপ 

ঘ) মেরু অঞ্চল-সূর্যের লম্ব রশ্মি

উত্তর: গ) মেরু অঞ্চল- বায়ুর উচ্চচাপ 

১.২ উত্তর আমেরিকার আলাস্কা যে জলবায়ুর অন্তর্ভুক্ত তা হলো-

ক) ক্রান্তীয় জলবায়ু

খ) লরেন্সীয় জলবায়ু

গ) ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ু

ঘ) তুন্দ্রা জলবায়ু

উত্তর: ঘ) তুন্দ্রা জলবায়ু

১.৩ দক্ষিণ আমেরিকার লাপ্লাটা নদী অববাহিকায় অবস্থিত বিস্তীর্ণ তৃণভূমি হলো—

ক) গ্রানচাকো

খ) পম্পাস

গ) ল্যানোস

ঘ) সেলভা

উত্তর: খ) পম্পাস

২. বাক্যটি সত্য হলে ‘ঠিক’ এবং অসত্য হলে ‘ভুল’ লেখো :

২.১ রাত্রিবেলা স্থলভাগ থেকে সমুদ্রের দিকে সমুদ্রবায়ু প্রবাহিত হয়।

উত্তর: ভুল

২.২ আপেক্ষিক আর্দ্রতার সাথে উয়তার সম্পর্ক ব্যস্তানুপাতিক।

উত্তর: ঠিক

২.৩ জুলাই-অগাস্ট মাসে আর্জেন্টিনায় গ্রীষ্মকাল বিরাজ করে।

উত্তর: ভুল

৩. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :

৩.১ সব মেঘ থেকে বৃষ্টি হয় না কেন?

উত্তর: বায়ুমণ্ডলে অবস্থিত জলীয়বাষ্প, ধূলিকণা প্রভৃতি একাধিক উপাদান ঘনীভূত হয়ে মিলিত হয়ে জলকণায় পরিণত হলে মেঘ সৃষ্টি হয়। মেঘের মধ্যে অবস্থিত জলকণায় ব্যাস ২ মিলিমিটারের বেশি না হলে মেঘ সৃষ্টি হলেও জলকণা বৃষ্টিপাত রূপে ঝরতে পারে না।বায়ুমণ্ডলের মধ্যে আপেক্ষিক আদ্রতার পরিমাণ ১০০% না হলে জলীয়বাষ্প সম্পূর্ণ রূপে ঘনীভূত হতে পারে না। তাই অনেক ক্ষেত্রে মেঘ করলেও বৃষ্টি সেরকম হয়না।যে সমস্ত মেঘ বায়ুমণ্ডলে বিখিপ্তভাবে অবস্থান করে সেই মেঘে জলকণা খুব সহজে একে অপরের সাথে ঘনীভূত হতে পারেনা।ফলে বৃষ্টিপাত হয়না বললেই চলে ।

৩.২ ‘আমাজন অববাহিকার ক্রান্তীয় বৃষ্টিঅরণ্য দুর্গম প্রকৃতির’– ভৌগোলিক কারণ ব্যাখ্যা করো।

উত্তর: নিরক্ষীয় জলবায়ু অঞ্চলের অন্তর্গত আমাজন অববাহিকার ক্রান্তীয় বৃষ্টিঅরণ্য একাধিক ভৌগোলিক কারণে হয়ে উঠেছে দুর্গম প্রকৃতির

• সূর্য সারাবছর লম্বভাবে কিরণ দেওয়ায় আমাজন অঞ্চলে অসহ্য উষ্ণ এক আবহাওয়া বিরাজ করে। সাথে সাথেই প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়। ফলে এই অববাহিকার ক্রান্তীয় বৃষ্টি অরণ্য দুর্ভেদ্য এক গভীর অরণ্য হয়ে উঠেছে।

• এই অঞ্চলের বনভুমির গাছ অত্যন্ত ঘন চাঁদোয়ার মতো অবস্থান করায় মাটির নীচে ঠিকঠাক সূর্যালোক প্রবেশ করতে পারে না। ফলে স্যাঁতস্যাঁতে মাটিতে লতাপাতা, গভীর ঝোপঝাড়, বিষাক্ত কীটপতঙ্গ, জীবজন্তু, ছত্রাকের আধিক্য চোখে পড়ে। এছাড়া সারা বছর পরিচলন বৃষ্টিপাতের কারণে বনভূমি জলমগ্ন থাকে।

উল্লেখিত কারণ গুলির জন্য আমাজন অববাহিকার ক্রান্তীয় বৃষ্টি অরন্য দুর্গম এবং নিবিড়তম।

৪. চিত্রসহ শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত সৃষ্টির প্রক্রিয়াটি বর্ণনা করো।

উত্তর: শৈল’ কথার অর্থ পর্বত আর ‘উৎক্ষেপ’ হলো ওপরে ওঠা। পর্বত দ্বারা বাধা পেয়ে বায়ু উৎক্ষিপ্ত হয়ে বৃষ্টিপাত হওয়ায় এই বৃষ্টির নামে শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত।

সমুদ্রের দিক থেকে আসা জলীয়বাষ্পযুক্ত আর্দ্র বায়ুর প্রবাহ পথে আড়াআড়ি ভাবে কোনো পর্বত বা উচ্চভূমি অবস্থান করলে ঐ বায়ু পর্বত বা উচ্চভূমিতে বাধা পেয়ে ঐ পর্বত বা উচ্চভূমির ঢাল বেয়ে ওপরের দিকে উঠে যায়। ঊর্ধ্বগামী এই বায়ু ক্রমশ প্রসারিত হয় ও ঠাণ্ডা হয়। আরও ওপরে উঠলে এই বায়ু সম্পৃক্ত হয়ে পড়ে এবং ঘনীভূত হয়ে বৃষ্টিপাত ঘটায়। এই বৃষ্টি হল শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত পর্বতের যে ঢাল বরাবর বায়ু ওপরের দিকে ওঠে ও বৃষ্টিপাত ঘটায় সেই ঢাল হলো প্রতিবাত ঢাল। আর এর বিপরীত যে ঢাল বরাবর বায়ু নীচের দিকে নামে, সেই ঢাল হলো অনুবাত ঢাল।

প্রতিবাত ঢাল প্রচুর বৃষ্টিপাত ঘটানোর পর বায়ু যখন পর্বতের অনুবাত ঢালে পৌঁছায় তখন সেই বায়ুতে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ যথেষ্ট কমে যায়। এছাড়া বায়ু যত নীচের দিকে ঢালের উষ্ণতার স্থানে নামতে শুরু করে বায়ুর উষ্ণতা তত বাড়তে থাকে। ফলে বায়ুর জলীয়বাষ্প ধারণের ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ায় বায়ু অসম্পৃক্ত হয়ে পড়ে। এই কারণে অনুবাত ঢাল প্রতিবাত ঢাল অপেক্ষা বৃষ্টিপাত খুবই কম হয়।তাই পর্বতের অনুবাত ঢাল বৃষ্টিপাত অঞ্চল নামে পরিচিত ।

Class 8 geography part 6

SWG Academy
ALL Class ALL Model Activities Click Here
 Class 6 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
 Class 6 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here
 Class 7 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here

 Class 7 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)

Click Here
 Class 8 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
 Class 8 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here
Class 9 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
Class 9 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here
Class 10 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
Class 10 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here

Leave a Comment

Your email address will not be published.