StudyWithGenius

Class 6 Model Activity Task Part 6 September New 2021 | ষষ্ঠ শ্রেণী মডেল অ্যাক্টিভিটি | Bengali, English, History, Geography

Class 6 All Subject Model Activity Task Part 6

answer of model activity task class 6, bengali class 6 model activity task, class 6 jeevan vigyan model activity tax, class 6 model activity class bangla part 6, class 10 model activity english part 6, class 6 model activity class geography part 6, class 6 model activity class history part 6, class 6 model activity english part 6, class 6 model activity for geography, class 6 model activity gonit, class 10 model activity itihaas part 6, class 6 model activity life science part 6 class 6 model activity mathematics part 6, class 6 model activity task physical science answer

WBBSE West Bengal Board of Secondary Education Class 6 All Subject Part 6 Model Activity Task Solution in Bengali . New Model Activity Task of Class 6 August (2nd Series) Answers PDF or Text based answers.

Class 6 Model Activity Task Part 6
SWG Academy

Class 6 Model Activity Task Bengali Part 6 September

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

বাংলা (প্রথম ভাষা)

ষষ্ঠ শ্রেণি

১. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও

১.১ ‘ভাদুলি’ ব্রত কখন উদ্যাপিত হয়?

উত্তর: ভাদুলি ব্রত বর্ষাকালের শেষের দিকে মেয়েরা করে থাকে। বৃষ্টির পরে আত্মীয় স্বজনদের সমুদ্রযাত্রা থেকে স্থলপথে নিজেদের বাসায় ফিরে আসার কামনায় তারা এই ব্রত করে। নদীর পাড়ে নানা আলপনা এঁকে, গান গেয়ে নদী মাতা কে জানায় তাদের প্রার্থনা।

১.২ সন্ধ্যায় হাটের চিত্রটি কেমন?

উত্তর: কবি যতীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত তার ‘হাট’ কবিতায় সন্ধ্যাবেলার বাস্তব চিত্রটুকু তুলে ধরেছেন। দূরের গ্রামগুলিতে প্রদীপ জ্বললেও হাট অন্ধকারে থেকে যায়। ক্লান্ত কাকের পাখনায় ধীরে ধীরে সন্ধ্যা নেমে আসে। হাটের দোচালা দোকানগুলি যেন চোখ বুজে বিশ্রাম নেয়, শুধু শোনা যায় জীর্ণ বাঁশের বুকে বাতাসের ফুঁ তে ওঠা বিদ্রূপের সুর।

১.৩ কোন্ তিথিতে রাঢ়বঙ্গের কৃষিজীবী সমাজের প্রাচীন উৎসব গো-বন্দনা, অলক্ষ্মী বিদায়, কাঁড়াখুঁটা, গোৱুখুঁটা প্রভৃতি পালিত হয়?

উত্তর: কালীপূজা অর্থাৎ কার্তিকের অমাবস্যা তিথিতে রাঢ়বঙ্গের কৃষিজীবী সমাজের প্রাচীন উৎসব গো- বন্দনা,অলক্ষী বিদায়, কাঁড়াখুটা, গরুখুঁটা প্রভৃতি পালিত হয়। এই উৎসবের সময় সমস্ত ঘরদোর পরিষ্কার করে আলপনা দিয়ে সাজানো হতো।

১.৪ কেমন যেন চেনা লাগে ব্যস্ত মধুর চলা– কবি কার চলার কথা বলেছেন?

উত্তর: কবি অমিয় চক্রবর্তী তাঁর ‘পিঁপড়ে’ কবিতায় ছোট ছোট পিঁপড়েদের চলার কথা বলেছেন। পিঁপড়ে গুলোর নিজেদের মধ্যে কথা না বলে, ব্যস্ত ভাবে সারি দিয়ে চলা- কবির মনে মুগ্ধতার সৃষ্টি করে।

১.৫ ‘সে বাড়ির নিশানা হয়েছে আমগাছটি’ ‘‘ফাকি’ গল্পে গোপালবাবু কীভাবে তাঁর বাড়ির ঠিকানা জানাতেন?

উত্তর: ‘ফাঁকি’ গল্পে আমরা দেখতে পাই গোপাল বাবুকে কেউ তার বাড়ির ঠিকানা জিজ্ঞেস করলে তিনি বলতেন- কাঠজোড়ি নদীর ধার বরাবর পুরীঘাট পুলিশের ফাঁড়ির পশ্চিমদিকে যেখানে পাঁচিলের মধ্যে আমগাছ দেখবেন- সেইখানে আমাদের বাড়ি। এভাবেই আমগাছটি তাদের বাড়ির নিশানা বা ল্যান্ডমার্ক হয়ে উঠেছিল।

 ১.৬ তুমি যে কাজের লোক ভাই! ওইটেই আসল’ কে, কাকে, কখন একথা বলেছিল?

উত্তর: ‘তুমি যে কাজের লোক ভাই! ওই টেই আসল’- এই কথাটি ঘাসের পাতা- পিঁপড়ে কে বলেছিল।বৃষ্টি কমে এলে, পিঁপড়েটি তার প্রাণ বাঁচানোর জন্য ঘাসের পাতাটিকে ধন্যবাদ জানালে সেই সময় ঘাসের পাতা কথাটি বলেছিল

২. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর নিজের ভাষায় লেখো:

২.১ ‘হঠাৎ একদিন ঝমঝম করে পড়ে বৃষ্টি’– তখন কৃষকরা কীভাবে ব্যস্ত হয়ে পড়ে ‘মরশুমের দিনে’ রচনাংশ অনুসরণে লেখো।

উত্তর: ‘হঠাৎ একদিন ঝমঝম করে পড়ে বৃষ্টি’ প্রচন্ড গরমের পর বৃষ্টির দেখা পেয়ে কৃষকদের মুখে হাসি ফোটে। দুই তিন দিন বৃষ্টির পর তারা হোগলার তৈরি মাথালে মাথা পিঠ ঢেকে ভারী বৃষ্টির মধ্যেই বেরিয়ে পড়ে চাষের কাজ করতে মাঠের দিকে। ধান রোয়া, আল বাঁধার কাজ সেরে ফেলতে হবে তাড়াতাড়ি। ধান চাষ ছাড়াও অনেকে পাট চাষ করে ; তাদের আরো কাজ, আরো বেশি ব্যস্ততা। লেখক তার ‘মরশুমের দিনে’ রচনাংশে এভাবেই বৃষ্টির পর কৃষকদের ব্যস্ততার ছবি এঁকেছেন।

২.২ শিশির-বিমল প্রভাতের ফল, শত হাতে সহি পরথের ছল বিকালবেলায় বিকায় হেলায় সহিয়া নীরব ব্যথা। উদ্বৃতাংশের তাৎপর্য বিশ্লেষণ করো।

উত্তর: যতীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত তাঁর ‘হাট’ কবিতায় গ্রাম-বাংলার চিরপরিচিত রূপটিকে তুলে ধরেছেন। সকালবেলায় শিশির ভেজা টাটকা শাকসবজি পাওয়া যায় হাটের দোকানগুলিতে। শাকসবজি ও ফলগুলি সারাদিন ধরে বিভিন্ন মানুষের হাতের পরখ সহ্য করে, অবশেষে বিকেল বেলায় অনেক কম দামে নিজের মনের যন্ত্রণা লুকিয়ে বিক্রি হয়ে যায়। কবি রূপক অর্থে শাকসবজি ও ফলের সঙ্গে মানবজীবনের তুলনা করেছেন।

 ২.৩ – এমন অভূতপূর্ব অবস্থায় আমায় পড়তে হবে ভাবিনি’। – গল্পকথক কোন অবস্থায় পড়েছিলেন?

উত্তর: লেখক শিবরাম চক্রবর্তী রাঁচিতে হুড্রুর দিকে সাইকেল নিয়ে যাচ্ছিলেন কিন্তু পথে সাইকেলের টায়ার খারাপ হয়ে যাওয়ায় বাকি পাঁচ মাইল পথ অনেকক্ষণ অপেক্ষার পর অবশেষে অন্ধকার সন্ধ্যায় ছোট্ট একটি বেবি অস্টিন গাড়ি দেখে তাড়াতাড়ি সেটাতে চেপে বসেন। গাড়িটি ধীরে ধীরে চলতে শুরু করে। লেখক গন্তব্যস্থল বলতে বলতে চমকে উঠেন– ড্রাইভার এর জায়গায় কেউ নেই! নিশ্চিত হন তিনি ভূতের পাল্লায় পড়েছেন। শীতেও তার ঘাম দেখা গেল। লেখক এই অবস্থার কথাই বর্ণনা করেছেন তাঁর গল্পে।

 ২.৪. বাঘ বাবা-মা বদলে নিলেন বাড়ি’— তাদের বাড়ি বদলাতে হয়েছিল কেন?

উত্তর: নবনীতা দেবসেন তার ‘বাঘ!’ কবিতায় একটি ছোট্ট হলুদ বাঘের কাহিনী শুনিয়েছেন। ছোট্ট বাঘটি তার বাবা-মায়ের সঙ্গে একটি পাখিরালয়ে থাকতো। ছোট্ট বাঘ টির খুব খিদে; সে পাখিগুলোকে থাবা দিয়ে ধরতে গেলেই তারা উড়ে পালাতো। এরপর খিদের জন্য বাঘছানাটি নদীর পাড়ে কাঁকড়া ধরতে গিয়ে নিজেই নাজেহাল হয়। ছোট ছোট মাছ ধরে খেতে চাইলে মা তাকে বকেন। শেষ পর্যন্ত ছেলের দুঃখ দেখে বাঘটির বাবা-মা কে তাদের বাড়ি বদলাতে হয়েছিল। এখন তারা তিনজন মিলে সজনেখোলা বনে থাকে।

৩. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

৩.১ শব্দজাত, অনুসর্গগুলিকে বাংলায় কয়টি শ্রেণিতে ভাগ করা যায় এবং কী কী?

উত্তর: শব্দজাত অনুসর্গগুলি নাম অনুসর্গ ও বিশেষ্য অনুসর্গ – নামেও পরিচিত। এই অনুসর্গ গুলিকে বাংলায় তিনটি শ্রেণীতে বিভক্ত করা হয়। সেগুলি হল—-

(1)সংস্কৃত বা তৎসম অনুসর্গ

উদাঃ তোমার দ্বারা ইহা সম্ভব।

(2)বিবর্তিত, রুপান্তরিত বা তদ্ভব অনুসর্গ

উদাঃ সঙ্গে, আগে, কাছে এই শব্দগুলি তদ্ভব অনুসর্গ।

(3)বিদেশি অনুসর্গ

উদাঃ আজ ভারত বনাম ইংল্যান্ডের ক্রিকেট ম্যাচ রয়েছে।

৩.২ উপসর্গের আরেক নাম ‘আদ্যপ্রত্যয়’ কেন?

উত্তর: আদ্য শব্দের অর্থ হলো– আদিতে বা প্রথমে। প্রত্যয় কথার অর্থ হল– মূল শব্দের সঙ্গে যে শব্দাংশ যুক্ত হয়ে নতুন নামপদ তৈরি করে। মূল শব্দের আদিতে বা প্রথমে বসে যে প্রত্যয় শব্দটির অর্থ বদলে দেয় তাকে আদ্যপ্রত্যয় বলে। উপসর্গের কাজটিও সেই রকম। — তাই উপসর্গের আরেক নাম আদ্যপ্রত্যয়।

৩.৩ ‘ধাতুবিভক্তি’ বলতে কী বোঝ?

উত্তর: ক্রিয়াপদের মূল অংশকে ধাতু বলে। এই ধাতুর সঙ্গে বিভক্তি যুক্ত হয়ে নতুন শব্দ গড়ে তুললে সেটিকে আমরা ধাতুবিভক্তি বলি। যেমন : ‘কর’ ধাতুর সঙ্গে ‘এ’ বিভক্তি যুক্ত হয়ে— ‘করে’ ধাতু বিভক্তির সৃষ্টি করেছে।

৩.৪ শব্দযুগলের অর্থপার্থক্য দেখাও :  আশা / আসা, সর্গ/ স্বর্গ

উত্তর: আশা শব্দের অর্থ : ভরসা, আকাঙ্ক্ষা

          আসা শব্দের অর্থ: আগমন করা

          সর্গ শব্দের অর্থ: অধ্যায়, গ্রন্থের পরিচ্ছেদ

          স্বর্গ শব্দের অর্থ: দেবলোক

৩.৫ পদান্তর করো: জগৎ, জটিল

উত্তর:  জগৎ:- জাগতিক

           জটিল:- জটা

৩.৬ অনধিক ১০০ শব্দে অনুচ্ছেদ রচনা করো বাংলার উৎসব:-

উত্তর:                    

                       বাংলার উৎসব

ভূমিকা: ‘বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বণ’—বাঙালি জাতির উৎসবপ্রিয়তার কথা মাথায় রেখেই এই কথার প্রচলন হয়েছে।পরকে আপন করে নেওয়ার দুর্লভ গুণ বাঙালির সহজাত—আর উৎসব মানেই তো তাই, পারস্পরিক মিলন, ভাবের আদানপ্রদান। সেই কারণেই হয়তো বাঙালির জীবনে উৎসবের এই প্রাধান্য।দৈনন্দিন জীবনের একঘেয়েমি যখন মানুষকে ক্লান্ত করে তোলে, তখন সেই প্রাত্যহিকতায় এক ঝলক মুক্ত হাওয়া বয়ে আনে উৎসব। রোজকার রুটিন-বাঁধা জীবন থেকে ছাড়া পেয়ে সবাই তাই খুশিতে মেতে ওঠে। উৎসব তাই আমাদের মানসিক পরিচর্যা ঘটিয়ে আবার নতুন উদ্যমে কাজের জগতে ফিরিয়ে নিয়ে আসে।

বিভিন্ন উৎসব:  উৎসবপ্রিয় বাঙালির উৎসবের জন্য কোনো বিশেষ উপলক্ষ্য লাগে না। প্রাণের উৎসবে মাতোয়ারা বাঙালির উৎসবগুলিকে তাও কয়েকটি শ্রেণিতে ভাগ করা যায়—জাতীয় উৎসব, ঋতু উৎসব, ধর্মীয় উৎসব, সামাজিক ও পারিবারিক উৎসব।

             জাতীয় উৎসবগুলি হল—স্বাধীনতাদিবস, প্রজাতন্ত্র দিবস, মহাত্মা গান্ধির জন্মদিন। এই দিনগুলিতে সমগ্র ভারতবর্ষের সঙ্গে বাঙালিও উৎসবে মেতে ওঠে। এ ছাড়া আছে নেতাজির জন্মদিন, রবীন্দ্রজয়ন্তী ইত্যাদিও। এইগুলি বাঙালির নিজস্ব জাতীয় উৎসব।বাঙালির উৎসবের একটা বড়ো অংশ জুড়ে আছে বিভিন্ন ধর্মীয় উৎসব। তার মধ্যে যেমন আছে দুর্গাপুজো, কালীপুজো, জগদ্ধাত্রীপুজো, রাস উৎসব, রথযাত্রা, সরস্বতী পুজো, বাসন্তী পুজো, গুরুপূর্ণিমা, তেমনি আছে ইদ-উল-ফেতর, ইদুজ্জোহা, মহরম, বড়োদিন প্রভৃতি। সাম্প্রদায়িকতা কখনওই বাঙালির উৎসবমুখরতার মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে পারেনি। একজনের আনন্দ কীভাবে পাঁচজনের আনন্দ হয়ে উঠতে পারে তার সফল দৃষ্টান্ত বাঙালির সামাজিক উৎসবগুলি।বাংলা কৃষিপ্রধান দেশ—তাই নতুন ধান ঘরে তোলার উৎসব সে পালন করে নবান্ন উৎসবের মধ্য দিয়ে। তবে প্রাকৃতিক উৎসবগুলি অনেক সময়ই উপস্থাপিত হয় ধর্মীয় মোড়কে। যেমন—নতুন শস্য রোপণের উৎসবটির প্রতীক হিসেবে পালিত হয় ইতুলক্ষ্মীর ব্রত উৎসব। এ ছাড়া বসন্ত যখন চারদিক রাঙিয়ে তোলে তখন বাঙালিও নিজেদের রাঙিয়ে নেয় দোল উৎসবের মধ্য দিয়ে।

উপসংহার:- প্রতিদিনের গতানুগতিক জীবন থেকে মুক্তির স্বাদ এনে দেয় উৎসব। জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে একসাথে মেতে উঠতে পারি আমরা। বাঙালিদের জীবনে উৎসবের প্রয়োজন ও গুরুত্ব তাই অপরিসীম।

SWG Academy

Model Activity Task Class 6 English Part 6

MODEL ACTIVITY TASK
CLASS – VI
ENGLISH

ACTIVITY 1

Read the following passage and answer the questions that follow:

‘One Thousand and One Nights’ is a collection of the Middle Eastern folk tales compiled in Arabic during the Islamic Golden Age. It is often known in English as ‘The Arabian Nights’. The work was collected over many centuries by various authors, translators and scholars across West, Central and South Asia and North Africa. The bulk of the text is in prose, although verse is occasionally used for songs and riddles and to express serious emotion. Some of the stories commonly associated with ‘The Arabian Nights’, in particular, ‘Aladdin’s Wonderful Lamp’, “Alibaba and the Forty Thieves’ and ‘The Seven Voyages of Sindbad the Sailor’ were not part of ‘The Arabian Nights’ in its original Arabic version. These stories were added to the collection by Antoine Galland and other European translators.

A. Complete the following sentences with information from the text: 

(i) ‘The Arabian Nights’ is a collection of_________________________________.

Ans:  the Middle Eastern folk tales compiled in Arabic during the Islamic Golden Age.

(ii) In the text, verse is used for____________________________________________.

Ans: songs and riddles and to express serious emotion.
(iii) One of the famous translators of ‘The Arabian Nights’ is ___________.

Ans:  Antoine Galland.

B. Answer the following questions: 

(i) When was ‘The Arabian Nights’ composed?

Ans: ‘The Arabian Nights’ composed during the Islamic Golden Age .

(ii) In which language was it originally written?

Ans: It was originally written in Arabic.

(iii) How did the English translation of ‘The Arabian Nights’ differ from the original version?

Ans:  Because some of the stories commonly associated with ‘The Arabian Nights’, in particular, ‘Aladdin’s Wonderful Lamp”,”Alibaba and the Forty Thieves’ and ‘The Seven Voyages of Sindbad the Sailor’ were not part of ‘The Arabian Nights’ in its original Arabic version.

ACTIVITY 2

Identify the Assertive, Imperative, Optative, Exclamatory and Interrogative sentences:

(i) Hurray! We have won the match.

Ans: Exclamatory Sentence.

(ii) What is your name?

Ans: Interrogative Sentence.

(iii) Neeraj Chopra won gold medal in the Tokyo Olympics.

Ans: Assertive sentence.

(iv) Open the door.

Ans: Imperative Sentence.

(v) May God bless you.

Ans: Optative Sentence.

ACTIVITY 3

Add Prefixes to the words given below and make opposites:

Respect           – Disrespect

Comfortable  – Uncomfortable 

Fortune          – Misfortune 

Mature           – Immature 

Literate          – Illiterate 

ACTIVITY 4

Develop the following outline into a story. Add a suitable title and a moral to your story:

Stag was drinking water – saw the image of his horns – admired them – disliked slender legs – chased by a pack of wolves – horns caught in thick bush – lamented

Ans :-  

 The Stag And His Horns

Once there lived a stag in a dense forest. There was a stream inside the forest. All the animals were used this water. The stag was very thirsty. He went to the stream to drink water. He saw the reflection of his horns in the water. He felt proud. When he saw the reflection of his legs, he felt ashamed and cursed God for this injustice .He admired his horns and disliked slender legs. Just then, a pack of wolves came and they chased him. 

He ran away as fast as he could. His thin legs helped him to escape. He realized that his ugly-looking legs were his real friends.

Soon his beautiful horns proved an enemy to him. They got entangled in a bush. He tried his best to release himself. But he could not succeed. The pack of wolves reached there. They killed him.

 

Moral:- All glittering ornaments are not gold.

 

SWG Academy

Class 6 model activity task Part 6 History 2021 new

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

ষষ্ঠ শ্রেণি

ইতিহাস

১. শূন্যস্থান পূরণ করো

(ক) জৈন ধর্মের প্রধান প্রচারককে বলা হতো _______________ |

উত্তর: তীর্থঙ্কর ।

(খ) আজীবিক গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন _______________ |

উত্তর: গোশাল ।

(গ) সুও ও বিনয় পিটক সংকলিত হয়েছিল _______________ বৌদ্ধ সংগীতির সময়।

উত্তর: প্রথম।

২. সত্য বা মিথ্যা নির্ণয় করো :

(ক) পরবর্তী বৈদিক যুগের ইতিহাস জানার একমাত্র উপাদান ঋকবেদ।

উত্তর: মিথ্যা ।

(খ) ভরত গোষ্ঠীর রাজা ছিলেন সুদাস।

উত্তর: সত্য।

(গ) প্রায় ছ-বছর তপস্যা করার পর মহাবীর বোধি বা জ্ঞান লাভ করেন।

উত্তর: মিথ্যা ।

৩. একটি বা দুটি বাক্যে লেখো :

(ক) মেগালিথ কী?

উত্তর:  মেগালিথ হচ্ছে একপ্রকার প্রাচীন পাথর যা কোন স্থাপত্য বা মিনার তৈরী করতে এককভাবে বা অনেকগুলো নিয়ে ব্যবহৃত হয়। আর মেগালিথিক মানেই হচ্ছে এই বিশেষ প্রাচীন পাথরের তৈরী কোন স্থাপনা যা মর্টার বা কনক্রিটের ব্যবহার ছাড়াই তৈরী করা হয়েছে এবং অতি অবশ্যই যা প্রাগৈতিহাসিক বলে অভিহিত করা যায়। পরবর্তীতে নির্মিত স্থাপনাগুলোকে অবশ্য মনোলিথিক বলে অভিহিত করা যায়।

(খ) জাতকের গল্পের মূল বিষয়বস্তু কী? 

উত্তর: জাতকের মূল চরিত্র বা অতীতের বোধিসত্ত্বই বর্তমানের বুদ্ধ। অতীত জীবনের সাথে বর্তমান জীবনের সম্পর্ক স্থাপন করা হয় যাকে সমবধান বা সমাধান বলা হয়। জাতকের উপদেশ ও নীতি শিক্ষা মানুষকে মৈত্রী পরায়ণ, দয়াবান, সৎ ও আদর্শবান হতে শেখায়।

৪. নিজের ভাষায় লেখো (৩-৪টি বাক্যে)

নব্যধর্ম আন্দোলন কেন গড়ে উঠেছিল?

উত্তর: খ্রিস্টপূর্ব ষষ্ঠ শতকে নাগাদ ভারতীয় উপমহাদেশে সমাজ, অর্থনীতি ও রাজনীতি বদলাতে শুরু করে। নতুন নতুন নগর গড়ে ওঠে। ব্যবসায়ীদের মধ্যে অনেকেই ধনি ছিল। যজ্ঞে পশু বলি দেওয়া কৃষকদের পক্ষে ছিল ক্ষতিকর। আগে বর্ণ ভাগ ছিল কাজের ভিত্তিতে পরে তা জন্মগত ও ধর্মের বহুলতা আচার সর্বস্বতা একসময় বৈদিক ধর্ম থেকে সাধারণ মানুষকে মুখ ফিরিয়ে নিতে বাধ্য করেছিল। সমুদ্রযাত্রা নিষিদ্ধ, সুদে টাকা খাটানো নিন্দনীয় প্রভৃতি বিষয় শুরু হাওয়ায় ব্যবসায়ীরা বিপদে পড়েছিল, তাই তারা নতুন ধর্মের দিকে ঝুঁকতে আরম্ভ করেছিল। বৈশ্যদের পাশাপাশি ক্ষত্রিয়রাও নতুন ধর্মের দিকে ঝুকে ছিল যা হবে সহজ-সরল। এই চাহিদার জন্য পথে এসেছিল দুটি নতুন ধর্ম – জৈন ধর্ম এবং বৌদ্ধ ধর্ম। ব্রাহ্মণ্য ধর্মের যাগযজ্ঞের বিরোধিতা করে পশুবলি নিষিদ্ধ করে বেদের বিরোধিতা করে ধর্ম সম্পর্কে এক নতুন পথের সন্ধান দেয়। এই সব ধর্মের প্রচার করার জন্য নতুন নতুন অনেক কথা বলেছিলেন যা সাধারণ মানুষকে আকর্ষণ করেছিল। আর এই নতুন ধর্মমত গুলোই নব্য ধর্ম নামে পরিচিত হয়েছিল।

SWG Academy

Class 6 model activity task Part 6 Geography 2021

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক

ষষ্ঠ শ্রেণি

পরিবেশ ও ভূগোল

১. বিকল্পগুলি থেকে ঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখো :

. উত্তর আমেরিকা ইউরোপের মাঝে অবস্থিত মহাসাগরটি হলো

ক) প্রশান্ত মহাসাগর
গ) ভারত মহাসাগর
খ) আটলান্টিক মহাসাগর
ঘ) সুমেরু মহাসাগর

উত্তর: ) আটলান্টিক মহাসাগর

. পশ্চিমবঙ্গের জলবায়ুর প্রকৃতি

ক) উষ্ণ-আর্দ্র
খ) শীতল-আর্দ্র
গ) শীতল-শুষ্ক
ঘ) উয়-শুষ্ক

উত্তর: ) উষ্ণআর্দ্র

. ভারতের একটি পশ্চিমবাহিনী নদী হলো

ক) কাবেরী
খ) গোদাবরী
গ) নর্মদা
ঘ) মহানদী

উত্তর: ) নর্মদা

২. স্তম্ভ মেলাও:

 

TABLE GEOGRAPHY

৩. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :

৩.১ বিকিরণ পদ্ধতিতে কীভাবে পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল উত্তপ্ত হয়?

উত্তর: যে পদ্ধতিতে কোনো মাধ্যম ছাড়াই বা মাধ্যম থাকলেও তাকে উত্তপ্ত না করে তাপ এক বস্তু থেকে অন্য বস্তুতে চলে যায়, সেই পদ্ধতিকে বিকিরণ পদ্ধতি বলে । বায়ুমণ্ডল সূর্যকিরণের দ্বারা সরাসরিভাবে উত্তপ্ত হয় না । সুর্য থেকে আলোর তরঙ্গ বায়ুমণ্ডল ভেদ করে ভূপৃষ্ঠে এসে পড়ে । সূর্য থেকে আগত বিকিরিত তাপশক্তি পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের মধ্য দিয়ে ভূপৃষ্ঠে এসে পড়লেও বায়ুমণ্ডলকে প্রথমে উত্তপ্ত না করে ভূপৃষ্ঠে এসে পড়ে । ভূপৃষ্ঠ সেই তাপ শোষণ করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে । ভূপৃষ্ঠ উত্তপ্ত হয়ে উঠলে আলোক চৌম্বকীয় তরঙ্গরূপে সেই তাপের বিকিরণ শুরু হয় ও ভূপৃষ্ঠ সংলগ্ন বায়ুস্তর উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ।

৩.২ বিশ্ব উষ্বায়নের কারণে পৃথিবীর শীতলতম মহাদেশ কীভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে?

উত্তর: বিশ্ব উষ্ণায়ন বা গ্লোবাল ওয়ার্মিং-এর ফলে পৃথিবীজুড়ে তাপমাত্রা একটু একটু করে অস্বাভাবিক মাত্রায় বেড়ে চলার কারণে  বিষুবীয় ও মেরু অঞ্চলের তাপমাত্রা দ্রুত বাড়ছে ।ক্রমাগত উষ্ণতা বাড়ার ফলে প্রতিদিন একটু একটু করে গলে যাচ্ছে আন্টার্কটিকার বরফ,কমে যাচ্ছে মহাদেশটার আয়তন। ফলে ক্রিল, সিল, পেঙ্গুইন সবারই সংখ্যা কমছে,নষ্ট হচ্ছে আন্টার্কটিকার প্রাকৃতিক ভারসাম্য । বরফের এই অস্বাভাবিক গলনের ফলে ফলে সমুদ্রের জলস্তরও একটু একটু করে ঊর্ধ্বগামী হচ্ছে। মনে করা হচ্ছে, আর ১০০ বছরের মধ্যে হিমশৈলসহ সুমেরু কুমেরুতে জমে থাকা সমস্ত বরফ জলে পরিনত হবে ।

8. অরণ্য সংরক্ষণ করা কেন প্রয়োজন বলে তুমি মনে করো?

উত্তর: মানবজীবনের তিনটি মূল উপাদান খাদ্য-বস্ত্র-বাসস্থান, সবেরই উৎসস্থল এই অরণ্যই। এককথায় বলা যায় যে, দৈনন্দিন জীবনের প্রায় সব কাজের জন্যই মানুষ অরণ্যের কাছে ঋণী।মানবজীবনের সঙ্গে ওতোপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে অরণ্য। শুধু যে খাদ্য-বস্ত্র-বাসস্থানের যোগান দেয় তা নয়, অরণ্যের উপর নির্ভর করে প্রচুর মানুষের জীবিকা। অসংখ্য পরিবারের দিন গুজরান হয় কেবল অরণ্যের ভিত্তিতেই। এর পাশাপাশি অরণ্যের যথেচ্ছ নিধন ক্রমাগত প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের পরিমাণ বাড়িয়ে দেবে। ধ্বংসের দিকে এগোবে সমাজ। দূষিত হবে পরিবেশ।তাই আমাদের অরণ্য সংরক্ষণ করা প্রয়োজন।

ALL Class ALL Model Activities Click Here
 Class 6 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
 Class 6 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here
 Class 7 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here

 Class 7 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)

Click Here
 Class 8 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
 Class 8 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here
Class 9 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
Class 9 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here
Class 10 Model Activity Task Part 7 (Bengali, English, History, Geography )Click Here
Class 10 Model Activity Task Part 7 (Science, Mathematics, Health & Physical Education)Click Here

Leave a Comment

Your email address will not be published.